এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিরোধী প্রার্থী নেই ৯০% আসনেই, বিজয় উৎসব শুরুর মুখে শাসকদল

বিরোধী প্রার্থী নেই ৯০% আসনেই, বিজয় উৎসব শুরুর মুখে শাসকদল



আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার প্রায় এক মাস আগেই আগামীকাল অর্থাৎ সোমবার বিজয়োৎসব পালনের পরিকল্পনা হাওড়ার উদয়নারায়ণপুরে তৃণমূল কংগ্রেস দলের স্থানীয় দলীয় কর্মীদের। কারণ হিসেবে তারা জানালেন এই বিধানসভা কেন্দ্রের ৯০-র বেশি শতাংশ আসনে বিরোধীরা প্রার্থী দিতে পারেনি । সেই কারণেই তারা আগাম বিজয় উৎসব পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সূত্রের খবর অনুযাই শনিবার পর্যন্ত সিপিএম ২২৪টি গ্রাম পঞ্চায়েত আসনের মধ্যে মাত্র ২৪টিতে এবং পঞ্চায়েত সমিতির ৪৮টি আসনের মধ্যে মাত্র ৮টি আসনে প্রার্থী মনোনয়নপত্র পেশ করতে পারলেও বিজেপির পক্ষ থেকে কোনো মনোনয়নপত্র পেশ হয়নি বলে জানা গেছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

রাজ্যের দুই বিরোধী পক্ষ সিপিএম এবং বিজেপির হাওড়া জেলা সম্পাদক বিপ্লব মজুমদার এবং গ্রামীণ জেলা সভাপতি অনুপম মল্লিক উভয়েই শাসকদলের বিরুদ্ধে একই সুরে হিংসার অভিযোগ করেছেন। যদিও বিরোধীদলের এই দুই জেলা প্রতিনিধির অভিযোগে কোনো ভ্রুক্ষেপ না করে একরকম শ্লেষের সুরেই উদয়নারায়ণপুরের তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক সমীর পাঁজা বলেছেন,” ওঁরা যদি প্রার্থী খুঁজে না পান তাহলে তো তৃণমূলকে বললেই পারতেন। তৃণমূলের তরফ থেকে সাহায্য করা হত। তাঁর দাবি, ‌মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গত সাত বছরে প্রতিটি গ্রামে যে উন্নয়নের জোয়ার বইয়েছেন, শুধুমাত্র তার নিরিখেই মানুষ তৃণমূলকে ভোট দেবে।” এছাড়াও এদিন তৃণমূল বিধায়ক সমীর পাঁজা বললেন ‌কিছুদিন আগেই বিডিও অফিসের সর্বদলীয় বৈঠকে তিনি সমস্ত বিরোধী পক্ষকে পঞ্চায়েত নির্বাচনে অংশ নিতে অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয়, স্থানীয় মানুষ বিরোধীদের বিশ্বাস করতে পারছেন না। এই কারণেই প্রার্থী হতে চাইছেন না কেউ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য একদা সিপিএমের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত হাওড়া জেলার এই অংশটি ২০০৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই তৃণমূলের অধীনে পরিণত হয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!