এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > শোভন-কান্ড: জেলা সভাপতির পদ যাচ্ছেই, মন্ত্রীত্ত্ব ও মেয়রপদ নিয়ে সিদ্ধান্ত শীঘ্রই

শোভন-কান্ড: জেলা সভাপতির পদ যাচ্ছেই, মন্ত্রীত্ত্ব ও মেয়রপদ নিয়ে সিদ্ধান্ত শীঘ্রই



দাম্পত্য কলহ নিয়ে বিতর্ক ক্রমশ চরমে, মুখ্যমন্ত্রী সাবধান বাণী দেওয়া সত্ত্বেও পরিবর্তন আসেনি দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা সভাপতি শোভন চট্টোপাধ্যায়ের মধ্যে। আর তাই পঞ্চায়েত নির্বাচন মিটলেই তাঁর ‘ডানা ছাঁটা’- র প্রক্রিয়া চালু হবে বলে জানা গেছে। তৃণমূল সূত্রের খবর, শুধু জেলা সভাপতির পদ নয় দমকল, আবাসন, পরিবেশ এই তিনটি মন্ত্রিত্ব পদ এবং কলকাতা পুরসভার মেয়র পদ থেকেও তাঁকে সরানো হবে। আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রস্তুতি বৈঠকেও দেখা মিলছে না শোভনের। এদিন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সুব্রত বক্সী বিধায়কদের কাছে শোভন ছাড়া দলের যেটা সম্ভব কিনা জানতে চাইলে তাঁরা ইতিবাচক উত্তরই করেন।

আরো নতুন খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এদিন তৃণমূলের এক নেতা জানান, “শোভন চট্টোপাধ্যায় নেত্রীর খুবই কাছের ছিলেন। দলের গোপন প্রায় সব কিছুই তাঁর নখদর্পণে। এই রকম একজনের কাছ থেকে হঠাত্‍ করে এক সঙ্গে সব পদ কেড়ে নিলে ফল ভালো হবে না। তাই দল তাঁর বিরুদ্ধে ধীরে, ভেবে সিদ্ধান্ত নিচ্ছে।” জানা গেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনায় তাঁকে বাদ দিয়েই ভোটে লড়বে দল। আর সেই অনুযায়ী জয়নগরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে আইএনটিটিইউসি নেতা শক্তি মণ্ডলকে, কাকদ্বীপে কলকাতার ১২৯ নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর অঞ্জন দাসকে, বারুইপুরে আবু তাহেরকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এই সমস্ত নেতাকে রিপোর্ট করতে হবে জেলার জন্য সমস্ত প্রয়োজনীয় সই করতে হবে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ তথা রাজ্যসভার তৃণমূল কংগ্রেসের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা শুভাশিস চক্রবর্তীর কাছে। তৃণমূল সূত্রের খবর, শুভাশিস বাবু আসন্ন পঞ্চায়েত ভোটে ভালো ফল করলে পুরস্কার হিসাবে দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা সভাপতির দায়িত্ব তাকে দেওয়া হবে। কিন্তু এ বিষয় নিয়ে দলের কোনো নেতাই মুখ খোলেন নি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!