এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পঞ্চায়েতের প্রার্থী বাছাই নিয়ে মাস্টারস্ট্রোক দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

পঞ্চায়েতের প্রার্থী বাছাই নিয়ে মাস্টারস্ট্রোক দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়



”দল প্রার্থী ঠিক করবে। দলের ভাল ও বৃহত্তর স্বার্থ দেখে প্রার্থী বাছতে হবে। এবং সেখানে রেষারেষি যেন না থাকে। আমি এলাকার নেতা বা জেলার নেতা, আমার কথা মেনে চলতে হবে এমনটা হবে না। দলের প্রার্থীর পাশে থেকেই পঞ্চায়েতে সবাই মিলে ভোট করতে হবে।” পঞ্চায়েত ভোটের আগে দলের বিক্ষুব্ধদের ঠেকাতে এমনই মন্তব্যের মাধ্যমে দলকে মাস্টারস্ট্রোক দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত ভোটের আগে অন্তর্দ্বন্দ্ব এড়াতে তিনি নির্দেশ দেন, ”দল সবার ঊর্ধ্বে। কোনও ব্যক্তির কথামতো দল চলবে না। ফলে কেউ যেন ঠিকা না নেয় যে ওকে আমি টিকিট দেব না। ওকে আমি টিকিট দেব। মানুষের আবেগ ও মতামতকেই অগ্রাধিকার দিতে হবে।” মুকুল রায় দলত্যাগের পর থেকেই পুরোনো নেতাদের সক্রিয় করার বিষয় গুরুত্ব দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী, এমনটাই সূত্রের খবর। এদিন তিনি দলের উদ্দেশ্যে হুঁশিয়ারি জারি করে বলেন, ”প়ঞ্চায়েতে রেষারেষি করতে গিয়ে একটা, দুটো দানব যদি ঢুকে পড়ে, তা হলেই জ্বালিয়ে দেবে। ফলে দলের প্রার্থীর পাশে থাকতে হবে। কেউ প্রতিকূলতা তৈরির চেষ্টা করবে না।” কোনো অভিযোগ থাকলে তা পর্যবেক্ষকদের কাছে লিখিত দেওয়া এবং সিপিএম ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দেওয়া সদস্যদের তৃণমূলের দিকে টানার পরামর্শ এদিন তিনি দেন বলে জানা গেছে। এছাড়াও যারা প্রাথী তালিকা থেকে বাদ গেছেন তাদের জন্য ব্যবস্থা তিনি নিজে নেবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন। এদিন তিনি আরো বলেন, ”পঞ্চায়েতগুলোর মাধ্যমেই পরিষেবা দিই। প়ঞ্চায়েতগুলো হাতে না থাকলে পরিষেবা দিতে পারব না।” গোষ্ঠীকোন্দল থাকলে বিরোধী পক্ষের আক্রমণ নিশ্চিত, আর তাই অন্তর্দ্বন্দ্ব ভুলে এদিন ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন মুখমন্ত্রী, এমনটাই সূত্রের খবর।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!