এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পঞ্চায়েতের ঠিক আগে বিস্ফোরক অভিযোগে টালমাটাল গেরুয়া শিবির

পঞ্চায়েতের ঠিক আগে বিস্ফোরক অভিযোগে টালমাটাল গেরুয়া শিবির



আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনের মাত্র কয়েক ঘন্টা পূর্বেই নয়া ঝঞ্জাটে জড়ালো উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলার বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপি দলের এক প্রার্থীর বিরুদ্ধে বেশ কিছু গুরুতর অভিযোগ উঠলো। জানা যাচ্ছে বিজেপির এই অভিযুক্ত প্রার্থী  একাধিক মামলায় জেল খেটেছেন শুধু তাই নয় সম্প্রতি নিউ জলপাইগুড়ি থানায় তাঁর বিরুদ্ধে এক নাবালিকাকে অপহরণ, জোর করে আটকে রাখা এবং জালিয়াতির মতো একাধিক অভিযোগ জমা পড়েছে । এসব রাজ্যের শাসক দলের চক্রান্ত জানিয়ে বিজেপির জেলা সভাপতি দেবাশিষ চক্রবর্ত্তী এদিন বললেন, ” হারের ভয়ে তৃণমূল পুলিশকে দিয়ে এই কাজ করিয়েছে। আর অভিযোগ করা হল ভোটের মাত্র দু’দিন আগে।কেন এই সময়কে বেছে নেওয়া হল। উনার বিরুদ্ধে তো আগেই অভিযোগ জানাতে পারতেন।”  এদিকে এই ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসতেই রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশন অভিযুক্ত ওই বিজেপি প্রার্থী অলোক সেন এবং স্ত্রী পম্পি সেনের বিরুদ্ধে উপযুক্ত আইনী ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানিয়ে রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে চিঠি লিখেছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

উল্লেখ্য গত ৯ ই মে এই সেন দম্পতির বিরুদ্ধে এক নাবালিকার মা নিউ জলপাইগুড়ি থানায় এফআইআর দায়ের করেন। অভিযোগকারী ঐ মহিলার এফআইআর’এর বয়ান অনুয়ারী, অলোক সেন জোর করে তাঁর মেয়েকে পরিবারের কাছ থেকে দূরে সরিয়ে রেখেছেন। মেয়ের সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হত না। পরে তিনি জানতে পারেন তাঁর মেয়ের নাম এবং পরিচয় বদল করে সেন দম্পতি তাঁর নাবালিকা মেয়েকে অন্যত্র পাঠিয়ে দিয়েছে। এর মধ্যে আবার ঐ নাবালিকার মা, অলোক সেনের বিরুদ্ধে দুর্নীতিগ্রস্ততার একাধিক অভিযোগের কথা জানতে পারেন। অভিযোগ বেআইনী নথি তৈরী করায় নাকি অলোক সেন’র জুড়ি মেলা ভার। তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক বেআইনী নথি তৈরীর অভিযোগ রয়েছে। এইসব অভিযোগের মধ্যে বেশ কিছু অভিযোগের তদন্ত করছে সিবিআই। চলতি মাসেই ঐ নাবালিকার মা আরও একবার নিজের মেয়েকে ফেরত পাওয়ার আশা নিয়ে অলোক সেন’র বাড়ি যান। কিন্তু সেখানে তাঁকে চরম হেনস্তার শিকার হতে হয়। অলোক বাবু তাঁকে হুমকি অবধি দেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ঐ নাবালিকা মা জানিয়েছে অলোক সেন তাঁকে জানিয়েছেন ,”পুলিশের দ্বারস্থ হলে ফল ভোগ করতে হবে।” শেয অবধি নিজের মেয়ের নিরাপত্তার কথা ভেবে ঐ নাবালিকার মা পুলিশের শরণাপন্ন হয়। এবং রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশন এই ঘটনার কথা জানতে পেরে মেয়েটিকে উদ্ধার করে। এই ঘটনা প্রসঙ্গে রাজ্য শিশু সুরক্ষা কমিশনের এক সদস্য প্রসূন ভৌমিক বললেন, ”ওই বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে অনেক গুরুতর অভিযোগ রয়েছে। সমস্ত আইনি দিক খতিয়ে দেখে অভিযুক্ত ব্যক্তির প্রার্থীপদ বাতিল করা সম্ভব কি না, তা বিবেচনা করে দেখার জন্য চিঠি লিখে রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছি।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!