এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > রিটার্নিং অফিসারকে ধমকে চমকে ফের বিতর্কে জড়ালেন রবীন্দ্রনাথ ঘোষ

রিটার্নিং অফিসারকে ধমকে চমকে ফের বিতর্কে জড়ালেন রবীন্দ্রনাথ ঘোষ



ক্লিপ ভাইরাল হতেই সামনে এলো ধমকের ছবি। অডিও ক্লিপে শোনা যাচ্ছে ভোট গণনা কেন্দ্রে উত্তরবঙ্গের উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ ধমকাচ্ছেন কোচবিহার এক নম্বর ব্লকের রিটার্নিং অফিসার বিডিও সঞ্জয় মালাকারকে। অডিওতে শোনা গেছে রবীন্দ্রনাথবাবু বলছেন, “কমল দাসের ওখানে আমাদের যে ছেলেটা জিতছে ছয় ভোটে ওটা কিন্তু ছয় ভোটেই জেতাতে হবে। গন্ডগোল করলে আমি মানব না। খইরুল কিন্তু জিতে গেছে, ওকে উইনিং সার্টিফিকেট দিতে হবে। এই দুটো আপনাকে আমি বলে দিলাম। না হলে কিন্তু আমরা ছাড়ব না। আমরা এখানেই আছি। আমি কিছু জানি না, আমি কিছু শুনব না।” কমল দাস ও খইরুল মিঞা হলেন কোচবিচার এক নম্বর ব্লকের দুটি গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রার্থী।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

বিডিওকে এমনভাবে ধমকের কারণ জানতে চাওয়া হলে রবীন্দ্রনাথবাবু জানান, “বিডিও উলটোপালটা করে কী করছে। ঝামেলা চলছে ভিতরে। খইরুলের ব্যাপারটাও ওইরকম। খইরুল জিতে আছে কিন্তু কংগ্রেসের লোকটাকে জিতিয়ে দিচ্ছে বিডিও। ওটা নিয়ে বিডিওর সঙ্গে ঝামেলা আছে।” বিডিওর অন্য প্রার্থীদের জেতানোর উদ্যেশ্য জানতে চাওয়া হলে রবীন্দ্রনাথবাবু বলেন, “জানি না বিডিও কেন এমন করছেন। বিডিওর যাওয়ার সময়, বিডিও যেতে চায় হয়ত। বাড়ি যেতে চায় ওইজন্য প্ল্যানিং করছে। ভাবছে আমার বিরুদ্ধে যদি ওরা সোচ্চার হয় তবে আমি বাড়ি যেতে পারব। শিলিগুড়ির বাড়ি।” ভোট পর্ব চালু হওয়া থেকে রবীন্দ্রনাথবাবু একের পর এক বিতর্কে জড়িয়েছেন। ভোট গ্রহণের দিন বুথে এক বিজেপি প্রার্থীকে চড় মারার অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। এরপর কোচবিহার পুলিশকে হুমকি দিয়ে ভোট গণনা কেন্দ্রের দায়িত্ব নিজের হাতে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে। এরপর বিডিওকে ধমক দেওয়ার অডিও ক্লিপ মিললো। ঘটনার জেরে গোটা রাজনৈতিক মহল এখন সরগরম বলে জানা গেছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!