এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > ইসলামপুরে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে চাঞ্চল্যকর মন্তব্য স্কুল পরিচালনা সমিতির সদস্যের

ইসলামপুরে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে চাঞ্চল্যকর মন্তব্য স্কুল পরিচালনা সমিতির সদস্যের



ছাত্র আন্দোলনের জেরে পুলিশ-ছাত্র সংঘর্ষের জেরে দুজন ছাত্র মৃত্যুকে কেন্দ্র করে এখনো থমথমে অবস্থায় রয়েছে উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুর ব্লকের দাড়িভিট স্কুলের চত্বর। বাংলা শিক্ষক নিয়োগের দাবীতে আন্দোলনে পথে নেমেছিল স্কুল পড়ুয়ারা। পুলিশের গুলিতে দুজন নিষ্পাপ তরুণের প্রাণ দিতে হল। আরেকটি ছাত্রের অবস্থাও আশঙ্কাজনক। এই নবীন প্রজন্মের মৃত্যুর দায় কে নেবে? এ প্রশ্নকে কেন্দ্র করে রাজ্যরাজনীতিতেও উত্তেজনার পারদ চড়ছে ক্রমশ। এরমধ্যেই ছাত্র আন্দোলনের কারণ হিসাবে প্রকাশ্যে এল দাড়িভিট উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা সমিতির অন্যতম সদস্য তপন কুমার মজুমদারের একটি বিস্ফোরক মন্তব্য।

তিনি জানালেন, স্কুলের পরিচালনা সমিতির সদস্যদের থেকে গোপন করেই নাকি চলছিল নিয়োগ প্রক্রিয়া। সম্প্রতি একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির যে পদগুলোতে নিয়োগ চলছিল সেই পদগুলির জন্য কোনো শিক্ষক রাখার অনুমোদনই নেই স্কুলের। গোটা বিষয়টি বিস্তারে জানা ছিল জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শকের। এমনটাই দাবী তপন বাবুর। এটা নিয়ে কিছুদিন আগেই পরিচালনা সমিতির সঙ্গে জেলা বিদ্যালয় পর্যবেক্ষকদের একটি বৈঠকের পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে ওই দুই বিভাগে আপাতত কোনো নিয়োগ করা হবে না। তা সত্ত্বেও তাঁদের অন্ধকারে রেখে কেন বাংলা বিষয়ের বদলে উর্দুতে শিক্ষক নিয়োগ করাতে উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছিল এটা স্কুল পরিচালনা সমিতির সত্যিই জানা নেই এমনটাই জানালেন তপন বাবু। তবে স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা এটা নিয়ে প্রতিবাদ করায় গন্ডোগোল দানা পাকিয়েছিল এমনটাই বললেন তিনি। স্কুল চত্বরে এমন ধরনের গন্ডোগোলকে ও গুলির ঘটনায় ছাত্রের মৃত্যুকে একেবারের সমর্থন করলেন না তপন বাবু।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

গত ১৮ সেপ্টেম্বর উর্দু শিক্ষক নিয়োগের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে ছাত্রদের আন্দোলনের খবর পেয়ে জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক এবং অন্যান্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরের আধিকারিকরা স্কুল চত্বরে এসেছিলেন। আন্দোলন থামানোর জন্য তাঁরা পড়ুয়াদের আশ্বাস দেন স্কুলে উর্দু বিষয়ে শিক্ষক নিয়োগ হবে না। স্কুল পরিচালনা সমিতির সঙ্গে বৈঠক করেও চূড়ান্ত করা হয়েছিল একই সিদ্ধান্ত। তা সত্ত্বেও কেন ২০ সেপ্টেম্বর উর্দু বিষয়ে শিক্ষক নিয়োগ হল,এ প্রশ্নকে ঘিরে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে ছাত্র মৃত্যু কান্ডে। তবে এ বিষয়ে কোনো প্রকাশ্য মন্তব্য পাওয়া যায়নি জেলা শিক্ষা দপ্তর বা পরিচালন সমিতির সভাপতি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!