এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > অবস্থান বিক্ষোভ মঞ্চ থেকে ফের মদন মিত্র বক্তব্য রাখলেন অভিষেক

অবস্থান বিক্ষোভ মঞ্চ থেকে ফের মদন মিত্র বক্তব্য রাখলেন অভিষেক



পেট্রোপন্যের দাম হু হু করে বাড়াচ্ছে বিজেপির কেন্দ্রীয় সরকার। তার ফলে স্বাভাবিক ভাবেই মূল্য বৃদ্ধি হবে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের। ভোগান্তির শিকার হবেন আমজনতা। এর তীব্র প্রতিবাদ জানাতে পথে নামলো রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেস। এদিন গান্ধীমূর্তির পাদদেশে বিক্ষোভ আন্দোলন করতে দেখা গেলো রাজ্যের শাসকদলকে। আন্দোলনের নেতৃত্বে ছিলেন তৃণমূল কংগ্রসের যুবনেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। কোলকাতার সুবোধ মল্লিক স্কয়্যার থেকে পার্ক স্ট্রিট অব্দি এদিন প্রতিবাদ মিছিলে হেঁটেছিলেন বিক্ষুব্ধ তৃণমূলের দলীয় সমর্থকরা।

মিছিলের শেষে বক্তব্য রাখতে গিয়ে পেট্রোল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে যেমন সরব হয়েছিলেন যুবনেতা তেমনি কথা প্রসঙ্গে টানলেন সারদাকান্ডের মদনমিত্রকে। যে সারদাকান্ড শাসকদলের গরিমাকে কালিমালিপ্ত করেছিল সেই ইস্যুকেই প্রসঙ্গে টানলেন এদিন। জানালেন, মদন মিত্রকে সারদার টাকা মারার অভিযোগে জেলে ঢোকানো হয়েছিলো। সিবিআই তিনদিন ধরে জেলবন্দি করে তাকে নানাভাবে জেরা করেছিলো। তাতে লাভ কী হয়েছে? মদন মিত্রের কিছুই করতে পারেনি পুলিশ। তিনি বিড়াল হয়ে ঢুকেছিলেন এবং বেরোলেন বাঘ হয়ে। এর পাশাপাশি তিনি সিবিআইকেও তোপ দেগে বললেন যে অন্য অনেক রাজনৈতিক দলকে নাকি CBI-ED দেখিয়ে ভয় দেখিয়ে কন্ট্রোলে রাখার চেষ্টা করেছেন ওঁরা। কিন্তু তৃণমূলের সাথে ওঁরা সেটা করার ক্ষমতা রাখেননা। কারণ তৃণমূল কংগ্রেস নাকি লোহার মতো। যত মারা হবে ততোই বাড়বে নাকি তার কাঠিন্য।

অভিষেক বাবুর এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিততে মদন মিত্রের মনোভাব জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর সঙ্গে খুবই ঘনিষ্ট সম্পর্ক তাঁর। খুব ছোটবেলায় মদনবাবু তাকে কোলে নিয়ে ঘুরেছেনও। অভিষেকবাবুর মা-বাবা দুজনের সঙ্গের স্নেহের বন্ধন তাঁর। আগেরদিন তিনি নাকি মোটেও ও ধরনের কথা বলেনি। একটি সংবাদমাধ্যম নাকি ইচ্ছাবশত ওসব ছেপেছে। তাতে তিনি মোটেও প্রভাবিত নন। তিনি যে অভিষেকের জন্য গর্বিত এটাও জানান তিনি। এরপর তিনি নিজেকে জটায়ুর সঙ্গে তুলনা করে জানান যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তাঁর পরিবারকে তিনি রাবণের হাত থেকে রক্ষা করার জন্য তিনি সবসময় তৎপর থাকবেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!