এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > অভিষেকের নতুন নাম দিলেন লকেট! বাড়ল বিতর্ক!

অভিষেকের নতুন নাম দিলেন লকেট! বাড়ল বিতর্ক!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের পর থেকেই প্রতিটি সভা-সমিতিতে নাম না করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে “তোলাবাজ ভাইপো হটাও” বলে আক্রমণ করতে শুরু করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। আর শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে পা রাখার সাথে সাথেই যেভাবে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম না করে তাকে “তোলাবাজ” বলে আক্রমণ করছেন, তাতে উজ্জীবিত বিজেপি নেতা কর্মীরা। আর শুভেন্দুবাবুর পথ অনুসরণ করেই একের পর এক বিজেপির হেভিওয়েট নেতা নেত্রী থেকে শুরু করে কর্মী-সমর্থক সকলেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করতে শুরু করেছেন। আর এই পরিস্থিতিতে এবার নাম না করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে “স্বামী তোলাননন্দ” বলে আক্রমণ করলেন বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। যে ঘটনায় ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে গোটা রাজ্য জুড়ে।

সূত্রের খবর, এদিন ভগবানপুরে বিজেপির একটি কর্মীসভায় উপস্থিত হন সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। আর সেখানেই নাম না করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা গেছে তাকে। তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগ করে লকেট চট্টোপাধ্যায় বলেন, “নরেন্দ্র মোদীজি স্বামী বিবেকানন্দের বাণী দেখিয়ে সকলকে এগিয়ে যেতে বলেন। স্বামী বিবেকানন্দের আদর্শ বাণীকে সম্মান করেন। আর তৃণমূল সরকার বিবেকানন্দের ছবির উপর ভাইপোর ছবি দেয়। যেন মনে হচ্ছে স্বামী তোলানন্দ।”

আর লকেট চট্টোপাধ্যায় “ভাইপো” শব্দ উচ্চারণ করে তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কেই যে কটাক্ষ করেছেন, তা কার্যত পরিষ্কার। এদিন তিনি বলেন, “স্বামী বিবেকানন্দের নাম করে চারিদিকে বিশৃঙ্খলা চালানো হচ্ছে। কয়লা পাচার, গরু পাচার পাচারে পাচারে রয়েছে স্বামী ভাইপো নন্দ।” অর্থাৎ শুভেন্দু অধিকারীর পথে হেঁটেই লকেট চট্টোপাধ্যায় এদিন তোলাবাজির অভিযোগ তুলে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নতুন নাম দিয়ে তাকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করে রীতিমতো শোরগোল তুলে দিলেন।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বিশ্লেষকরা বলছেন, নির্বাচনের সময় যত এগিয়ে আসছে, ততই এই রকম ঘটনা আরও বেশি করে ঘটতে শুরু করবে। শাসকদল বনাম বিরোধীদের অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ নতুন কিছু নয়। কিন্তু দুর্নীতি সহ একাধিক অভিযোগে ইতিমধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেসের সরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করতে শুরু করেছে বিরোধী দল ভারতীয় জনতা পার্টি। এক্ষেত্রে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় যে বিরোধী দলের নেতা-নেত্রীদের কাছে আক্রমণের প্রধান কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাঁড়িয়েছে, তা বলাই যায়।

আর এই পরিস্থিতিতে ভগবানপুরের সভা থেকে সেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করে রীতিমত সেই তরজাকে আরও বাড়িয়ে দিলেন লকেট চট্টোপাধ্যায়। তবে নাম না করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে যে ভাবে আক্রমণ করলেন লকেটদেবী, তাতে তৃণমূলের পক্ষ থেকে পাল্টা কি প্রতিক্রিয়া আসে, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!