এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > সুদীপ্ত সেন ও এই বিজেপি নেতাদের মধ্যে কোনও পার্থক্য নেই: অভিষেক ব্যানার্জী

সুদীপ্ত সেন ও এই বিজেপি নেতাদের মধ্যে কোনও পার্থক্য নেই: অভিষেক ব্যানার্জী

Priyo Bandhu Media


আজ তৃণমূল যুব কংগ্রেসের পক্ষ থেকে FRDI ইস্যুতে কলকাতায় প্রতিবাদ মিছিল করা হয়। এই মিছিলে অংশগ্রহণ করেছিলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের নেতা, কর্মী ও সমর্থকরা। মিছিল শেষে বক্তব্য রাখেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারের এই নীতির বিরোধিতা করে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলিকে চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি সংসদেও সরব হয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় সাংসদরা, দিল্লিতে গান্ধী মূর্তীর পাদদেশে ধর্নায় বসেছেন তাঁরা। আর এবার একধাপ এগিয়ে প্রতিবাদ আরও জোরদার করতে কলকাতায় মিছিল করল রাজ্যের শাসকদল।

এদিনের সভামঞ্চ থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, মমতা ব্যানার্জি অনশন, গণ আন্দোলনের মাধ্যমে পথ দেখিয়েছিলেন। তাই তৃণমূলের আন্দোলন বৃহত্তর করতে হবে। কোনও ভাবে FRDI বিল যাতে পাশ না হয় তা দেখতে হবে। এরপর বিজেপিকে বিঁধে তিনি বলেন, বিজেপির গায়ের জোরে FRDI বিল পাশ হবে না। ভারতের জঞ্জাল পার্টি হলো বিজেপি। এরপর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেও আক্রমণ করে তিনি বলেন, আপনারা FD করে রাখতে পারেন, আপনারা আপনার সেভিংস অ্যাকাউন্টে টাকা রাখতে পারেন। কিন্তু নরেন্দ্র মোদী এমন বিল আনতে চলেছে, যার মাধ্যমে আপনার অনুমোদন ছাড়া, সম্মতি ছাড়া, আপনাকে না জানিয়ে সেই টাকা ব্যাঙ্ক জবর দখল করে নিতে পারে।

এরপর তিনি বিস্ফোরকভাবে সুদীপ্ত সেনের সাথে বিজেপির তুলনা টেনে বলেন, আমি মনে করি সুদীপ্ত সেন ও এই বিজেপি নেতাদের মধ্যে কোনও পার্থক্য নেই! তার কারণ, চিটফান্ডে যারা টাকা রেখেছিল তাদের টাকা প্রতারকরা উড়িয়ে দিয়েছে। আর আজ ব্যাঙ্কে টাকা রাখলে নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহরা তুলে নিয়ে চলে যাচ্ছেন। তাই, সুদীপ্ত সেন যদি গ্রেপ্তার হয় আমাদের ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী এবং মন্ত্রীসভার সদস্যদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ কেন নেওয়া হবে না ? এই প্রশ্ন সাধারণ মানুষের মনে জাগছে।

এর পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নমূলক কর্মসূচি তুলে ধরে তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারে আসার পর যা কথা দিয়েছেন প্রত্যেকটি রেখেছেন। নরেন্দ্র মোদীর সরকার একটি কথাও রাখেনি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কন্যাশ্রী বিশ্বের দরবারে পুরস্কৃত হয়েছে। আর যারা বড় বড় কথা বলে তারা কোনওদিন বাংলার উন্নতি চায় না। বিরোধীরা কোনওদিন উন্নয়ন নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারেনি। উন্নয়ন নিয়ে প্রশ্ন তুলতে চাইলে নিজেদের প্রশ্ন করুন, আপনাদের নেতা কী করেছে? আমরা বলে দেব, আমাদের নেত্রী কী কী করেছেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!