এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আবারও রাজ্য রাজনীতিতে পালাবদল, পদ্মবন ছাড়ার ফলে আজ একদা সতীর্থরাই ফুঁসে উঠলেন মুকুলের বিরুদ্ধে

আবারও রাজ্য রাজনীতিতে পালাবদল, পদ্মবন ছাড়ার ফলে আজ একদা সতীর্থরাই ফুঁসে উঠলেন মুকুলের বিরুদ্ধে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – রাজ্য রাজনীতিতে কার্যত আজকে রীতিমতো সবথেকে বড় আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে মুকুল রায়ের তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন। 2017 সালে যে মুকুল রায় তৃণমূল ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন বিজেপিতে, সেই মুকুল রায়ই একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের জয়ের একমাস পরেই স্বপুত্র ফিরে এলেন। প্রসঙ্গত বেশ কিছুদিন যাবৎ গেরুয়া শিবিরের ভাঙনের কথা শোনা যাচ্ছিল। আর সেই ভাঙনের সূত্রপাত যে মুকুল রায়কে ঘিরেই হবে, তারও ইঙ্গিত কিছুদিন আগেই পাওয়া গিয়েছিল যখন মুকুল পত্নীকে দেখতে পৌঁছে গিয়েছিলেন স্বয়ং তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এবার মুকুলের বিরুদ্ধে কার্যত ফুঁসে উঠলেন তাঁর গেরুয়া সতীর্থরা।

অন্যদিকে মুকুলের আজ দলবদলের সাথে সাথে কয়েক মাস আগে তৃণমূলের কথাই আজ বলছে বিজেপি। একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে যখন তৃণমূল থেকে এক ঝাঁক নেতা-মন্ত্রী, বিধায়ক দল ছেড়ে বিজেপিতে গিয়ে যোগ দিয়েছিলেন, তখন তাঁদেরকে তৃণমূল নেতৃত্ব গদ্দার, মীরজাফরের আখ্যা দিয়েছিলেন। ঠিক সেভাবেই এবার মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন রাজ্য বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ এবং অর্জুন সিং। প্রসঙ্গত এই সৌমিত্র খাঁ কিছুদিন আগেই মুকুল রায়ের বাড়িতে গিয়ে সাক্ষাৎ করেন দিলীপ ঘোষের সাংগঠনিক বৈঠক ছেড়ে। আজকে যেভাবে সৌমিত্র খাঁ এবং অর্জুন সিং মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে চাঁচাছোলা ভাষার প্রয়োগ করলেন, তা নিয়ে বিতর্ক থাকছে।

দিল্লি থেকে সরাসরি বিজেপির যুব নেতা সৌমিত্র খাঁ মুকুল রায়কে মীরজাফর বলে উল্লেখ করলেন। এমনকি মুকুল রায়কে বেইমান বলেও অভিহিত করলেন তিনি। পাশাপাশি রাজনৈতিক জগতে মুকুল রায়কে রাজনীতির চাণক্য বলেই অভিহিত করা হয়। সেই কথাকেই রীতিমতো কটাক্ষ করলেন সৌমিত্র খাঁ। একইসাথে যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি জানালেন, তিনি মীরজাফরদের বিরুদ্ধে বাংলায় থেকে বিজেপির হয়ে লড়াই চালাবেন, অন্যদিকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দেগে সৌমিত্র খাঁ বলেন, মীরজাফরদের দলে নিয়ে তৃণমূল বাংলাকে অন্ধকারের দিকে ঠেলে দেবে। অন্যদিকে ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং আজকে মুকুল রায়কে নিয়ে তীব্র আক্রমণ চালালেন।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত, মুকুল রায় এবং অর্জুন সিং এর রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব সুপরিচিত। সেই অর্জুন সিং এবার মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক হলেন। স্পষ্ট ভাষায় মুকুল রায়কে গদ্দার বলে অভিহিত করলেন তিনি। একইসাথে তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে একসময় মুকুল রায় গদ্দারি করেছেন। সেই একই গদ্দারি বিজেপির সঙ্গে করলেন। অন্যদিকে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, মুকুল রায় বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি। সেক্ষেত্রে মুকুল রায় জাতীয় রাজনীতিতে পরিচিত মুখ।

সেই মুকুল রায় যখন বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন, তখন বাংলা রাজনীতির সঙ্গে জাতীয় রাজনীতিতেও যে ঢেউ উঠেছে তা এককথায় বলা যায়। একই সাথে মনে করা হচ্ছে, 2024 এর লোকসভা নির্বাচনের পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলের পক্ষ থেকে মুকুল রায়ের মতন সর্বভারতীয় স্তরের পরিচিত মুখকে কাজে লাগানো হতে পারে। সেক্ষেত্রে আগামী দিনে তৃণমূলের কি পরিকল্পনা এবং কিভাবে মুকুল রায়কে কাজে লাগানো হবে, তা নিয়ে বর্তমানে চলছে বিস্তর জল্পনা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!