এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > রানিগঞ্জের বিজেপির সমাবেশকে ঘিরে রাজনৈতিক চাপান-উতোর তৃণমূল বিজেপির

রানিগঞ্জের বিজেপির সমাবেশকে ঘিরে রাজনৈতিক চাপান-উতোর তৃণমূল বিজেপির



সামনেই পঞ্চায়েত নির্বাচন।আর তার আগেই নিজেদের সভা সমাবেশ সম্পন্ন করতে তৎপর রাজ্য বিজেপির দলীয় নেতৃত্বরা।আগেই নানা জায়গায় বিজেপি দাবি করেছে যে তাদের সভা করতে দেওয়া হয়নি। এবং সে নিয়ে আদালতের দারাস্তও হয়েছে বিজেপি। এবার আবার সেই অভিযোগ উঠলো। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ডাকা রানিগঞ্জের দলীয় সভায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলেন যে রেল তাদের ওই মাঠে সভা করবার অনুমতি দিলেও রাজ্য পুলিশ তাদের মাইক ব্যবহারের অনুমতি দেয়নি।উল্টোদিকে আসানসোলের তৃণমূল মেয়র জিতেন্দ্র তেওয়ারিও পাল্টা দিলেন দিলীপবাবুকে।তিনি এদিন দাবি করেন যে ,ওই মাঠে বইমেলা করবার জন্য অনুমতি চাওয়া হয়েছিল সরকারের কাছে।কিন্তু তখন তা দেওয়া হয়নি।এবং এখন সেই মাঠেই বিজেপির সমাবেশের অনুমতি দিয়েছে রেল।

এদিন রানিগঞ্জের বিজেপির সভার প্রসঙ্গে আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্রবাবু বললেন,“গতবারেও আসানসোল বইমেলার সময় বাবুল সুপ্রিয় সাংসদ মেলা জুড়ে দিয়েছিলেন শহরে। এবারেও রেল বাবুলের প্রভাবে রানিগঞ্জে বইমেলা করতে মাঠের অনুমতি দেয়নি। অথচ ওই মাঠেই বিজেপি -র সভা হচ্ছে। এর থেকেই বোঝা যায় যে এই দল কত সংস্কৃতি বিরোধী। ২০১৯-এর পর এদের আর খুঁজে পাওয়া যাবে না।”সৃষ্টি হওয়া এই বিতর্কের হাওয়াকে আর না উস্কে এদিন সভা মঞ্চ থেকে দিলীপবাবু অভিযোগ তুলে বললেন, “সভা করার অনুমতি দিয়েছে রেল। এর জন্য নির্দিষ্ট টাকাও দেওয়া হয়েছে। কিন্তু, মাইক ব্যবহারের অনুমতি দেয়নি পুলিশ। গোটা রাজ্যেই এরকম ঘটনা ঘটছে। যাই হোক। সভা হবেই।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!