এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > লক্ষ্য বিধানসভা ২০২১ – আজই কি তৃণমূলে হতে চলেছে বড়সড় রদবদল? ক্রমশ জল্পনা বাড়ছে কর্মীমহলে

লক্ষ্য বিধানসভা ২০২১ – আজই কি তৃণমূলে হতে চলেছে বড়সড় রদবদল? ক্রমশ জল্পনা বাড়ছে কর্মীমহলে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –করোনা ভাইরাসের কারণে এবার সেভাবে একুশে জুলাই সমাবেশ করা সম্ভব হয়নি। তবে ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে দলের নেতাকর্মীদের আগামী বিধানসভা নির্বাচনের জন্য এখন থেকেই প্রস্তুত হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যে বিজেপির প্রভাব ক্রমশ বাড়ছে। তাই এই পরিস্থিতিতে বিজেপির মোকাবিলা করে কিভাবে উন্নয়নের ওপর ভর করে প্রচার করা যায়, তা দলকে নিজের বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

আরে একুশে জুলাইয়ের ভার্চুয়াল সভা থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বলতে শোনা গেছে, “আগামী বৃহস্পতিবার দলের মিটিং আছে। কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।” স্বাভাবিক ভাবেই তৃণমূলে যদি এরকম বৈঠক হয়, তাহলে কর্মী মহলে ব্যাপক পরিমাণে জল্পনা ছড়িয়ে পড়ে। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেহেতু নিজের মুখ থেকে এই বৈঠকের কথা বলেছেন, সেহেতু দলের অনেক কর্মীরাই আশা-আশঙ্কায় দিন গুজরান করতে শুরু করেছেন। সূত্রের খবর আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাজ্যস্তরে শীর্ষ নেতা এবং জেলার পদাধিকারীদের নিয়ে একটি বৈঠক করবেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রায় সকলের কাছেই এটা স্পষ্ট, একুশে জুলাইয়ের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বৈঠক তৃণমূলের অন্দরে প্রবল ভাবে তাৎপর্যপূর্ণ।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

কেননা একুশে জুলাইয়ের সভা মঞ্চ থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিকে কুপোকাত করার কথা বলে বুঝিয়ে দিয়েছেন যে, রাজ্যে বিজেপির প্রভাব কিছুটা হলেও বাড়ছে। সেদিক থেকে বারবার দলের কর্মীদের মতামত চেয়েছেন তিনি‌। তার বক্তব্যে বারবার উঠে এসেছে, “এবার আপনারা বিজেপিকে শক্ত হাতে মোকাবিলা করতে পারবেন তো!” কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় খুব ভালোমতই জানেন, তার দলের গোষ্ঠী কোন্দল এবং বিভিন্ন স্তরের নেতাদের দুর্নীতি সবথেকে বেশি বিরম্বনায় ফেলেছে ঘাসফুল শিবিরকে। তাই এই সমস্ত ঘটনাকে ইস্যু করে বিরোধীরা পথে নামলে ভালো ফল করার দিক থেকে অনেকটাই বাধাপ্রাপ্ত হবে তৃণমূল কংগ্রেস।

তাই রাজ্যে সাংগঠনিক কোনো ব্যক্তিকে যেমন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দিতে পারে শাসকদল, ঠিক তেমনই বিভিন্ন জেলায় বিশেষত উত্তরবঙ্গের ক্ষেত্রে দিনের বৈঠক থেকে বাড়তি কোনো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি দলের নবীন এবং প্রবীনদের মধ্যে সামঞ্জস্য রেখে দিনের বৈঠক থেকে নেওয়া হতে পারে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত।

তবে গোটা বিষয়েই যে আগামী দিনে বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করেই নিজের টিম সাজিয়ে নিতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। ফলে বৃহস্পতিবার ভিডিও কনফারেন্সে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমস্ত জেলা এবং রাজ্য স্তরের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে কি উঠে আসে, কোন গুরুত্বপূর্ণ সাংগঠনিক রদবদল অনুষ্ঠিত হয় তৃণমূল কংগ্রেসে, সেদিকেই নজর থাকবে রাজনৈতিক মহলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!