এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ২০২১-এর মধ্যেই সমস্ত ভারতবাসী পেতে চলেছেন করোনার টিকা? বড় সিদ্ধান্তের পথে কেন্দ্র সরকার?

২০২১-এর মধ্যেই সমস্ত ভারতবাসী পেতে চলেছেন করোনার টিকা? বড় সিদ্ধান্তের পথে কেন্দ্র সরকার?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – করোনা ভাইরাসের প্রথম ঢেউয়ের পর আবার যে দ্বিতীয় ঢেউ এইভাবে আছড়ে পড়বে, তা কেউ কল্পনা করতে পারেনি। প্রথম ঢেউ যখন ভারতবর্ষে প্রবেশ করেছিল, তখন আক্রান্ত হতে শুরু করেছিলেন একের পর এক সাধারন মানুষ। প্রাণ গিয়েছে বহু সেলিব্রিটি থেকে শুরু করে বিশিষ্টজনদের। চলেছে মৃত্যু-মিছিল। তবে প্রথম ঢেউয়ের পর ভারতবর্ষ থেকে করোনা ভাইরাসকে দূরীভূত করতে সরকারের পক্ষ থেকে টিকাকরন প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছিল। কিন্তু টিকাকরন প্রক্রিয়া শুরু হতে না হতেই দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে।

এখন তার সঙ্গে মোকাবিলা করতে হচ্ছে গোটা দেশকে। এই পরিস্থিতিতে বিভিন্ন রাজ্যে সংকট দেখা দিয়েছে। 130 কোটি দেশবাসীকে টিকা দেওয়ার পদ্ধতি যে অতটা সহজ নয়, তা বুঝতে পারছেন সকলেই। যার ফলে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ যখন আছড়ে পড়েছে, তখন সকল মানুষকে টিকা দেওয়া প্রধান চ্যালেঞ্জের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে সরকারের কাছে। তবে কিছুতেই টিকার আকাল মেটানো যাচ্ছে না। তবে এবার করোনা ভাইরাস আটকানোর জন্য গণ টিকাকরণ পদ্ধতির উপর ভরসা রাখতে চাইছে কেন্দ্রীয় সরকার।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই কোভিশিল্ড এবং কো- ভ্যাকসিন, দুই প্রকার টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে গোটা দেশজুড়ে। কিন্তু সকলস্তরের মানুষ এই ভ্যাকসিন পাচ্ছেন না। যার ফলে ইতিমধ্যেই অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে। ইতিমধ্যেই দ্রুত যাতে গণ টিকাকরণ করা হয়, তার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার সব চেষ্টা করছে বলে জানিয়ে দিয়েছেন নীতি আয়োগের সদস্য তথা কেন্দ্রীয় সরকারের করোনা রেসপন্স দলের ‌প্রধান বিনোদ কুমার পাল।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

আর নীতি আয়োগের সদস্যের এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে এখন ব্যাপক আশা তৈরি হয়েছে গোটা দেশজুড়ে। অনেকে বলছেন, দ্রুত যদি করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দেশবাসীর মধ্যে প্রয়োগ করার উদ্যোগ নেওয়া হয়, তাহলে এই দ্বিতীয় ঢেউ আটকানো সম্ভব। কিন্তু একসাথে এত মানুষকে কিভাবে ভ্যাকসিন দেওয়া সম্ভব হবে, তা সকলের কাছে চিন্তার বিষয়।

তবে নীতি আয়োগের সদস্য যেভাবে গণ টিকাকরণের পদ্ধতির ওপর জোর দেওয়ার কথা বললেন, তা নিঃসন্দেহে আশার আলো তৈরি করছে। তাহলে কি সত্যি সত্যিই কেন্দ্রীয় সরকার গনটিকাকরনের রাস্তায় হাঁটতে চলেছে? আর তা শেষ হতে চলেছে চলতি বছরেই? নীতি আয়োগের সদস্যের মন্তব্যের পর সেই জল্পনা দ্বিগুণ ভাবে ফুটে উঠেছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!