এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > আপনার সাধের ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজটি ‘জাল’ নয় তো? দেশজোড়া আতঙ্ক, বাদ নেই বাংলাও!

আপনার সাধের ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজটি ‘জাল’ নয় তো? দেশজোড়া আতঙ্ক, বাদ নেই বাংলাও!

সারা দেশে প্রতি বছরেই গড়ে উঠছে অবৈধ ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ। এদিন লোকসভায় এআইএডিএমকের এক প্রশ্নের  এর জবাবে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী সত্যপাল সিং জানালেন বর্তমানে সারা দেশে মোট ২৭৭টি জাল ইঞ্জিনিয়ারিং ও টেকনিক্যাল কোর্সের কলেজ রয়েছে। জানা যাচ্ছে এইসব বেআইনী ভাবে গড়ে ওঠা ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ গুলির  অবস্থানের বিচারে শীর্ষ স্থানে রয়েছে স্বয়ং রাজধানী দিল্লী।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

সেখানে অবস্থিত মোট কলেজের মধ্যে ৬৬টি কলেজের কোনো আইনী স্বীকৃতি নেই। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে দাক্ষিণাত্যের তেলেঙ্গানা । মোট ৩৫ টি জাল কলেজ রয়েছে। তৃতীয় স্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের নাম। ২৭ টি বেআইনী কলেজ রয়েছে এই রাজ্যে। চতুর্থ এবং পঞ্চম স্থানে রয়েছে যথাক্রমে কর্ণাটক এবং উত্তর প্রদেশ। এখানে জাল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের সংখ্যা ২৩ এবং ২২ টি।

  এছাড়াও সারা দেশের নানা প্রান্তে রাজ্য প্রদেশ নির্বিশেষে পাওয়া যাচ্ছে এই বেআইনী ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ গুলির উজ্জ্বল অস্তিত্ব। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে জানা যাচ্ছে উত্তর পূর্ব ভারতের ওড়িশায় ১টি, ঝাড়খণ্ডে ৪টি ও বিহারে ১৭টি জাল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ রয়েছে। শীর্ষ স্থানে থাকা দিল্লী বাদ দিয়ে গোটা উত্তর ভারতের মধ্যে চণ্ডীগড়ে ৭টি, হরিয়ানায় ১৮টি, হিমাচলপ্রদেশে ১টি, পঞ্জাবে ৫টি, উত্তরাখণ্ডে ৩টি কলেজ রয়েছে। পশ্চিম ভারতের  মহারাষ্ট্রে ১৬টি, গোয়ায় ২টি, রাজস্থানে ৩টি জাল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ রয়েছে। জানা যাচ্ছে দিল্লী ছাড়া দেশের অন্য কোনো কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে এইরকম ব্যাপক হারে অবৈধ ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ গড়ে ওঠেনি। এই কলেজ গুলির পঠনপাঠন বন্ধ করার প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানালেন, যে রাজ্যে এই কলেজ গুলি গড়ে উঠেছে সেই রাজ্যের সরকারকেই আইনী পদক্ষেপ গ্রহণ করে ঐসব কলেজ অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!