এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বড়সড় সুখবর পুরসভার অস্থায়ী চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের জন্য, জেনে নিন

বড়সড় সুখবর পুরসভার অস্থায়ী চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের জন্য, জেনে নিন

অবশেষে হাওড়া পুরসভার 419 জন চুক্তিভিত্তিক অস্থায়ী কর্মীকে নিয়মিতকরন করা হল। যা নিয়ে খুশির রোল পড়ে গিয়েছে কর্মীদের মধ্যে। প্রসঙ্গত, এই হাওড়া পৌরসভার 419 জন অস্থায়ী চুক্তিভিত্তিক কর্মীরা গত নয় মাস ধরে তাদের বেতন পাচ্ছিলেন না। ফলে তৈরি হয়েছিল জটিলতা। আর সোমবার এই সমস্ত সমস্যার সমাধানের কথা শোনা যায় পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের গলায়।

সূত্রের খবর, এদিন বিকেলবেলায় হাওড়া পৌরসভায় উচ্চপদস্থ সরকারি আমলারা আসতে শুরু করেন। আর তাদের দেখেই পুরসভার গেটে অপেক্ষা করেন সেই চুক্তিভিত্তিক কর্মীরা। আর এর কিছু পরেই সেই হাওড়া পুরসভায় এসে পৌছন কলকাতা পৌরসভার মেয়র তথা রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। আর সেখানে বেশ কিছুক্ষণ রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন পুরমন্ত্রী।

আর এই বৈঠক শেষে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “চুক্তিভিত্তিক 419 জন কর্মচারীর যে সমস্যা চলছিল তার সমাধান হয়েছে। আগামী 10 তারিখ থেকে এরা বেতন পাবেন। এই কর্মচারীদের বিভিন্ন দপ্তরে ছড়িয়ে দিয়ে পুরসভার কাজে লাগানো হবে। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী এদের বেতন রাজ্য সরকার দিতে পারে না। তাই এদের বেতন পুরসভা দেবে।”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে চুক্তিভিত্তিক কর্মচারীরা এই খবর শোনার সাথে সাথেই আনন্দে ফেটে পড়েন। কারণ দীর্ঘদিন তাদের বেতন না হওয়ায় সংসারে টানাপড়েন শুরু হয়েছিল। ফলে পুরমন্ত্রীর ঘোষনায় তাদের মধ্যে তীব্র উচ্ছ্বাস লক্ষ্য করা যায়। এদিকে এদিনের এই বৈঠক শেষে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “হাওড়ায় যে সমস্ত রাস্তাঘাট খারাপ হয়ে আছে, সেই সমস্ত বিষয় নিয়ে আজকে আলোচনা হয়েছে। হাওড়া পুরসভা প্রশাসকের তত্ত্বাবধানে বেশ ভালই চলছে।”

সব মিলিয়ে দীর্ঘদিন ধরে হাওড়া পুরসভার অস্থায়ী চুক্তিভিত্তিক 419 জন কর্মী বেতন না পাওয়ার সমস্যার সমাধান হওয়ায় খুশির রোল ছড়িয়ে পড়ল তাদের মধ্যে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!