এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > গননায় কোনোপ্রকার ত্রুটি না রাখতে ভোট গণনার জন্য কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন

গননায় কোনোপ্রকার ত্রুটি না রাখতে ভোট গণনার জন্য কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে নির্বাচন কমিশন

রাত পোহালেই গননা। সময় আর কয়েকঘন্টার। ইতিমধ্যেই কার হাতে যাবে গনতন্ত্রের ভবিষ্যত তা নিয়ে বিভিন্ন মহলে চলছে জোর জল্পনা। ইতিমধ্যেই এই ভোট গণনাকে কেন্দ্র করে ইভিএম কারচুপির অভিযোগ তুলে সরব হয়েছে বিরোধীরা। রাজ্যের গণনা কেন্দ্রগুলিতে ইতিমধ্যেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে শুরু হয়েছে জোর তৎপরতা।

সূত্রের খবর, গণনার সময় রাজ্যে মোট 155 জন পর্যবেক্ষক হাজির থাকবেন। আর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনের জন্য থাকবেন 8 জন পর্যবেক্ষক, স্ট্রং রুমের গণনা কেন্দ্রের জন্য 82 কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী এবং ভোট-পরবর্তী মোকাবিলায় রাজ্যে 200 কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে বলে জানা গেছে।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার সকাল আটটা থেকে রাজ্যের 42 টি লোকসভা কেন্দ্রের 58 টি গণনা কেন্দ্রে এই গণনার কাজ শুরু হবে। মোট টেবিলের সংখ্যা 4668 টি। জানা গেছে, কলকাতা দক্ষিনে 25 রাউন্ড ও ঝাড়গ্রামে 25 রাউন্ড গননা হবে। আর সব থেকে কম রাউন্ড গণনা হবে রায়গঞ্জ এবং বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

যেখানে 10 রাউন্ড করে গণনা হবে বলে খবর। তবে বাকি লোকসভা কেন্দ্রগুলিতে 17 থেকে 20 রাউন্ড গণনা হবে বলে জানা গেছে। আর এই গণনা কেন্দ্রের নিরাপত্তা নিয়ে যাতে কোনো রাজনৈতিক দল কোনো অভিযোগ করতে না পারে তার জন্য সেই গণনা কেন্দ্রের প্রতিটি কাউন্টিং হলেই ভিডিওগ্রাফি করার ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।

এদিকে কমিশনের পক্ষ থেকে গণনা কেন্দ্রে মোবাইল নিয়ে ঢোকার ব্যাপারেও নিষেধাজ্ঞা জারি করে দেওয়া হয়েছে। তবে রাজ্যের কোন জেলায় কত কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে এই গণনার দিন? নির্বাচন কমিশনের তরফে জানা গেছে, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং, দক্ষিণ দিনাজপুর, আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেট, পূর্ব মেদিনীপুর, সুন্দরবনে 5 কোম্পানি, কোচবিহার, উত্তর দিনাজপুর, মালদা, বীরভূম, ঝাড়গ্রাম ও ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের জন্য 8 কোম্পানি, কলকাতা, নদিয়া মুর্শিদাবাদে 10 কোম্পানি, পশ্চিম মেদিনীপুরে 9 কোম্পানি, পূর্ব বর্ধমান, পুরুলিয়া, হুগলি গ্রামীণ, হাওড়া গ্রামীণ, বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেট, বারাসাত, বসিরহাট, বারুইপুর, ডায়মন্ডহারবারে 7 কোম্পানি, বাঁকুড়ায় 4 কোম্পানি, অন্যদিকে শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেট, চন্দননগর পুলিশ কমিশনার এবং হাওড়া পুলিশ কমিশনারেট এলাকায় 3 কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে।

পাশাপাশি কালিম্পংয়ে 2 কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করার ব্যাপারে খবর পাওয়া গেছে। অন্যদিকে ভাটপাড়ায় যাতে কোনোরূপ অশান্তি সৃষ্টি না হয় তার জন্যও বাড়তি নজর দিয়েছে কমিশন। সব মিলিয়ে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে গণনাকেন্দ্রগুলিতে সুষ্ঠুভাবে গণনা পর্ব সম্পন্ন করতে উদ্যোগী নির্বাচন কমিশন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!