এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বঙ্গ বিজেপির নবাগতরা কি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে টিকিট পাবেন? পেলেও কে কোন আসন থেকে পেতে পারেন?

বঙ্গ বিজেপির নবাগতরা কি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে টিকিট পাবেন? পেলেও কে কোন আসন থেকে পেতে পারেন?

একদা রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের অঘোষিত দুনম্বর নেতা মুকুল রায় দলত্যাগ করে বিজেপিতে যোগদান করেন। আর গেরুয়া শিবিরে পদার্পন করেই তিনি হুঙ্কার ছেড়েছিলেন, তৃণমূল কংগ্রেসের সংগঠন আদতে নাকি উইয়ের বাসা! সময় এলেই দেখা যাবে তা ঝুরঝুর করে ভেঙে পড়ছে! যদিও মুকুল রায়ের সেই হুঙ্কারে কোনো রকম পাত্তা দেয় নি তৃণমূল কংগ্রেস। উল্টে ঘাসফুল শিবিরের নেতাদের দাবি ছিল, মুকুল রায় নাকি ‘গদ্দার’! আর তাই ‘গদ্দারের’ সাথে যাবেন না তৃণমূল কংগ্রেসের কোনো নেতা-নেত্রীই!

কারণ হিসাবে শাসক শিবিরের নেতারা জানিয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকদের কাছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই সব। তাঁর নীতি ও আদর্শেই দল চলে – এমনকি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্নেহচ্ছায়ায় ছিলেন বলেই মুকুলবাবু কাঁচরাপাড়ার অখ্যাত গলি থেকে উঠে ভারতের রেলমন্ত্রী হতে পেরেছিলেন। কিন্তু, দলবদলের পরে মুকুলবাবুর মাথা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত উঠে যাওয়ায়, রাজনৈতিকভাবে তিনি নাকি অস্তিত্বহীন হয়ে পড়বেন। আর তাই, কোনো তৃণমূল কংগ্রেস নেতা-কর্মী মুকুল রায়ের সঙ্গে থাকবেন না বা দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেবেন না।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

কিন্তু, বাস্তবে দেখা গেল, মুকুলবাবুর রাজনৈতিক প্রজ্ঞার উপর ক্রমে ক্রমে বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্বের আস্থা বাড়ছে। পঞ্চায়েত নির্বাচন তাঁর নেতৃত্বে লড়ে বাংলায় অভাবনীয় ফল করে বিজেপি – বামফ্রন্ট বা কংগ্রেসকে পিছনে ফেলে তারা হয়ে ওঠে রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল। আর মুকুলবাবুকেও দেওয়া হয় বাংলার নির্বাচনী পর্যবেক্ষকের মত গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব। আর নতুন দায়িত্ব পেয়েই, তৃণমূল কংগ্রেসে ভাঙন ধরানো থেকে শুরু করে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠদের বিজেপিতে নিয়ে আসা – একের পর এক পদক্ষেপ নিয়ে যাচ্ছেন তিনি। জল্পনা ছড়িয়েছে তাঁর হাত ধরে আগামীদিনে আরও অনেক তৃণমূল কংগ্রেসের হেভিওয়েট নেতা বিজেপিতে আসবেন।

কিন্তু, ভবিষ্যতের কথা ভবিষ্যতে। আপাতত যাঁরা এসেছেন, তাঁরা কি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির টিকিট পাবেন? এটাই এখন লাখ টাকার প্রশ্ন। আজ রাজ্যের লোকসভা আসনে সাম্ভাব্য প্রার্থী নিয়ে কলকাতার এক অভিজাত হোটেলে বিজেপির একটি বৈঠক বসছে। সেখানে, তিনটি আসন বাদ দিয়ে প্রতিটি আসনে ৩-৪ জন করে সম্ভাবনাময় প্রার্থীর নাম রাজ্য নেতৃত্ব বেছে নিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে পাঠাবেন। তবে, তার আগে মুকুল রায়ের হাত ধরে যে নবাগতরা বিজেপিতে যোগদান করেছেন তাঁদের নাম নিয়েও জল্পনা ছড়িয়েছে। সূত্রের খবর, এঁদের নাম নিম্নলিখিত আসনের জন্য ঘোরাফেরা করছে (তবে বিজেপির তরফে সরকারিভাবে এই নিয়ে কিছু জানানো হয় নি) –

১. মৌসুমী চট্টোপাধ্যায় – কলকাতা-দক্ষিণ
২. সৌমিত্র খাঁ – বিষ্ণুপুর
৩. ভারতী ঘোষ – ঘাটাল
৪. শঙ্কুদেব পণ্ডা – কাঁথি
৫. বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায় – কলকাতা-উত্তর অথবা দিল্লির বাঙালি অধ্যুষিত কোনো আসন

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!