এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মিলেছে অমিত শাহের সবুজ সঙ্কেত, ভারতীয় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ পদে আসীন হতে চলেছেন বাংলার মহারাজ?

মিলেছে অমিত শাহের সবুজ সঙ্কেত, ভারতীয় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ পদে আসীন হতে চলেছেন বাংলার মহারাজ?

জমজমাট ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের রাজনীতি। আগামী ২৪ শে অক্টোবর নির্বাচন হতে চলেছে পৃথিবীর ধনীতম ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআইয়ের। আর আগামীকাল সেই নির্বাচনের জন্য মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন। আর তার পরিপ্রেক্ষিতে আজ মুম্বইতে বসছে বোর্ডের গুরুত্বপূর্ণ সভা। আর সেই সভার পরেই কার্যত ঠিক হয়ে যেতে পারে, কে কোন পদে বসতে চলেছেন।

সবথেকে বড় কথা, জগমোহন ডালমিয়ার পর, আর এক বাঙালি প্রশাসক হিসাবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সর্বোচ্চ পদে আসীন হতে পারেন সৌরভ গাঙ্গুলি। ইতিমধ্যেই এই নিয়ে এই মুহূর্তে ভারতীয় ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক অমিত শাহের সবুজ সঙ্কেতও নাকি পাওয়া গেছে। কিন্তু, বেশ কিছু জটিল সমীকরণ রয়েছে শেষ পর্যন্ত বাংলার ‘দাদার’ ওই পদ পাওয়ার জন্য।

এতদিন পর্যন্ত, বিজেপির তরফে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে নিয়ন্ত্রক ছিলেন অরুন জেটলি আর এই ব্যাপারে তাঁর সহকারী ছিলেন অনুরাগ ঠাকুর। কিন্তু, অরুন জেটলির অসুস্থতার পর থেকেই ধীরে ধীরে তা যেতে থাকে অমিত শাহের হাতে। আর অরুন জেটলির মৃত্যুর পর, এখন অমিত শাহই কার্যত এই ব্যাপারে শেষ কথা। এদিকে, অমিত শাহের ‘চ্যালেঞ্জার’ হওয়ার জন্য নতুন করে ঘুটি সাজাতে শুরু করেছেন প্রাক্তন বোর্ড প্রেসিডেন্ট এন শ্রীনিবাসন।

ইতিমধ্যেই তিনি নিজের মেয়েকে তামিলনাড়ু ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি করে ফেলেছেন। তা সত্ত্বেও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের যে অঙ্ক তাতে তিনি হালে পানি পাবেন না বলেই মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল। কিন্তু ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সর্বোচ্চ পদে বসার জন্য সৌরভ গাঙ্গুলির পাশাপাশি সাংবাদিক রজত শর্মার জন্য প্রবল লবিইং চলছে। তবে, দড়ি টানাটানিতে অমিত শাহের পছন্দের ভোটটি পেয়েছেন বাংলার মহারাজই বলে সূত্রের খবর।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে, সৌরভ গাঙ্গুলিকে সভাপতি করা হলে, অমিত শাহের পুত্র তথা গুজরাট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি জয় শাহকে সচিব পদে বসানো হতে পারে। আর কোষাধক্ষ্য পদটি পেতে পারেন ব্রিজেশ পটেল। সঙ্গে, রজত শর্মা ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুরের ভাই অরুন সিং ধূমলকেও গুরুত্বপূর্ণ পদে আনা হতে পারে। কিন্তু, একটি সূত্র চাইছে, জয় শাহকে সরাসরি সভাপতি করে দিতে।

এদিকে, অমিত শাহ নাকি তীব্রভাবে চাইছেন সৌরভ গাঙ্গুলি কমিটিতে থাকুন। একে দাপুটে ক্রিকেটার ও অধিনায়ক ছিলেন, একইসঙ্গে তাঁর স্বচ্ছ ভাবমূর্তি। অন্যদিকে, জয় শাহকে সভাপতি করা হলে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী হিসাবে অমিত শাহ ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন বলেও অভিযোগ উঠতে পারে। আর তাই, অমিত শাহ নিজে চাইছেন সৌরভ গাঙ্গুলিকে সামনে রেখেই বোর্ডের সমীকরণ বদলে দিতে।

সূত্রের খবর, সদ্য সিএবিতে দ্বিতীয়বারের জন্য সভাপতি মনোনীত হয়েছেন সৌরভ গাঙ্গুলি। ফলে, তিনি নিজে চাইছেন হয় সভাপতি অথবা সচিব পদ। কিন্তু, মুশকিল হল বোর্ডের নিয়ম অনুযায়ী মাত্র ১০ মাস বাদেই তাঁকে ৩ বছরের জন্য বাধ্যতামূলক ‘কুলিং পিরিয়ডে’ যেতে হবে। আর তাই মাত্র ১০ মাস বাদেই নতুন করে সভাপতি খুঁজতে হবে বিসিসিআইকে। সেক্ষেত্রে অ্যাডভ্যান্টেজ পেতে পারেন রজত শর্মা।

কিন্তু, বোর্ডের একটি সূত্র জানাচ্ছে, ১০ মাস পরের কথা ১০ মাস বাদেই ভাবা যাবে। সৌরভ গাঙ্গুলিকে যদি সভাপতি পদে আনা হয়, তাহলে সম্ভাবনা আছে যে ওই পদে আর নির্বাচনই হবে না। সহমতের ভিত্তিতে, ওই পদটিতে বসতে পারেন ‘দাদা’। এমনকি, সেক্ষত্রে অন্যান্য পদেও নির্বাচনের বদলে সহমতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত হয়ে যেতে পারে। ফলে, সবমিলিয়ে আজ রাত্রে মুম্বইতে অনেক জটিল অঙ্কের সমাধান হয়ে যেতে পারে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!