এখন পড়ছেন
হোম > খেলা > বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হবেন সৌরভ গাঙ্গুলি, ভবিষ্যৎবাণীতে নড়েচড়ে বসল রাজনৈতিক মহল

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হবেন সৌরভ গাঙ্গুলি, ভবিষ্যৎবাণীতে নড়েচড়ে বসল রাজনৈতিক মহল

২০১৪ লোকসভা নির্বাচনের আগে হঠাৎই রাজ্য-রাজনীতিতে জল্পনা ছড়িয়ে পরে যে রাজনীতিতে পা রাখতে চলেছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। বিজেপির তরফ থেকে তাঁকে ‘অফার’ দেওয়া হয়েছে, তাঁর মনোমত যেকোন আসন থেকেই তিনি দাঁড়াতে পারেন, যদি তাঁর মনে হয় বাংলার কোনো আসন ‘নিরাপদ’ নয়, তাহলে বিজেপি তাঁকে গুজরাটের কোনো ‘নিরাপদ’ আসন থেকে জিতিয়ে আনবে এবং কেন্দ্রে ক্রীড়ামন্ত্রকের দায়িত্ত্ব দেবে। এই ব্যাপারে নাকি সরাসরি দায়িত্ত্ব নিয়েছিলেন তৎকালীন বিজেপি প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদী। জল্পনা অনেকদূর গড়ালেও, সৌরভ নিজে রাজনীতি থেকে দূরে থেকেছেন। কিন্তু এরপরেই সিএবি প্রেসিডেন্ট জগমোহন ডালমিয়ার প্রয়াণ হলে, বাঙালির মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে সৌরভ গাঙ্গুলি, অভিষেক ডালমিয়াদের নবান্নে ডেকে সৌরভ গাঙ্গুলির সিএবি প্রেসিডেন্ট হওয়ার পথ প্রশস্ত করেন। তারপর থেকেই তৃণমূল কংগ্রেসের বা রাজ্য সরকারের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে দেখা গেছে। কিন্তু তিনি সক্রিয় রাজনীতিতে যোগ দেন নি, উল্টে নরেন্দ্র মোদী ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উভয়ের সঙ্গেই সুসম্পর্ক বজায় রেখেছেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এই পরিস্থিতিতে, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের আত্মজীবনী ‘আ সেঞ্চুরি ইজ নট এনাফ’ বইটির প্রকাশ অনুষ্ঠানে যুবরাজ সিংহের সাথে এসে বীরেন্দ্র শেহবাগ যে ভবিষ্যৎবাণী করলেন তাতে চমকে গেল সমগ্র রাজনৈতিক মহল। বীরেন্দ্র শেহবাগ বলেন, সিএবি সভাপতি হিসাবে সাফল্যের সঙ্গে কাজ করে চলেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, নেতৃত্ব দেওয়ার দক্ষতা তাঁর সহজাত। আর তাই, ও একদিন বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের চেয়ারে বসবে। কিন্তু, আমি একশো শতাংশ নিশ্চিত, দাদা একদিন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হবে। বাংলায় এখন এমনিতেই রাজনৈতিক পারদ যথেষ্ট চড়া, তার উপরে বীরেন্দ্র শেহবাগের এই ভবিষ্যৎবাণী নতুন কোন রাজনৈতিক সমীকরণের ইঙ্গিত দিল তাই খুঁজতে ব্যস্ত এখন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!