এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > লোকসভার বৈতরণী কি এই ‘মন্ত্রেই’ পেরোনোর চেষ্টা বিজেপির? যোগী আদিত্যনাথের মন্তব্যে নতুন করে জল্পনা

লোকসভার বৈতরণী কি এই ‘মন্ত্রেই’ পেরোনোর চেষ্টা বিজেপির? যোগী আদিত্যনাথের মন্তব্যে নতুন করে জল্পনা

২০১৪ সালে কেন্দ্রের ক্ষমতায় আসার আগে বিজেপির পক্ষ থেকে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল যে, ক্ষমতায় এলে অযোধ্যায় রামমন্দির স্থাপন করা হবে। কিন্তু দেখতে দেখতে পাঁচ বছরের বিজেপির সেই শাসনকাল প্রায় শেষ হতে চলল, কিন্তু এখনও সেই রাম মন্দিরের জন্য একটি ইট স্থাপনের আভাসটুকুও পাওয়া গেল না। যা নিয়ে বিজেপির প্রতি চরম ক্ষুব্ধ দেশের একাধিক হিন্দুত্ববাদী সংগঠন।

ক্ষমতায় আসার আগে বিজেপি হিন্দুত্বের তাস খেলে মানুষকে বিভ্রান্ত করেছে বলে পাল্টা গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে তোপ দাগতেও শুরু করেছেন অনেকে। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের তরফে উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যায় রাম মন্দিরের দাবিতে সভা-সমিতিও অনুষ্ঠিত হয়েছে। এমনকি এই রাম মন্দিরের প্রতিশ্রুতি পূরণ না হওয়ার কারণে বিজেপির সঙ্গ ছেড়েছে একদা এনডিএর শরিক শিবসেনাও।

আর এবারে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে সেই রাম মন্দির নিয়ে ফের নিজেদের ভূমিকায় অবতীর্ণ হল বিজেপি। এবার উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে মাঠে নামিয়ে এই ব্যাপারে কিছুটা ‘প্রেস্টিজ ফাইট’ করতে চাইছে গেরুয়া শিবির বলে অভিযোগ শুরু করেছেন বিরোধীরা। সূত্রের খবর, রবিবার উত্তরপ্রদেশের রাজধানী লখনউয়ে সভা করে যোগী আদিত্যনাথ বলেন, “অনেকে বলছেন যারা রামমন্দির নির্মান করতে পারবে, তাদেরকেই ভোট দেওয়া হবে। মন্দির যখনই হোক আর যেই করুক আমি আপনাদের আশ্বাস দিচ্ছি যে রামমন্দির আমরা ছাড়া আর কেউ করতে পারবে না”।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

রাজনৈতিক মহলের মতে, সামনেই লোকসভা ভোট। আর সেই লোকসভা ভোটে এই রাম মন্দির যাতে বিরোধীদের কাছে মূল ইস্যু হয়ে না দাঁড়ায় সেজন্য এখন থেকেই – রামমন্দির একমাত্র তারাই করতে পারে বলে হিন্দুদের ভোট নিজেদের কাছে টানতে মরিয়া বিজেপি। প্রসঙ্গত, বর্তমানে অযোধ্যায় রাম মন্দির স্থাপনের ব্যাপারে মামলা চলছে। আগামী মাসে সুপ্রিম কোর্টে এর শুনানি হওয়ার কথা। এদিকে মোরারি বাপুর আমন্ত্রণ ইতিমধ্যেই সেই রাম জন্মভূমিতে পা রেখেছেন প্রায় ২০০ জন যৌনকর্মী।

কিন্তু, মোরারি বাপুর পক্ষ থেকে এহেন উদ্যোগে বেজায় চটেছেন সেখানকার একাধিক সাধু-সন্তরা। রামের জন্মভূমিতে আমন্ত্রণ পেয়ে যৌন কর্মীরা নিজেদের ধন্য মনে করলেও এই ভাবে সেই পবিত্র শহরে যৌনকর্মীদের আমন্ত্রণ করা উচিত নয় বলে মন্তব্য করেন ডান্ডিয়া মন্দিরের মোহান্ত ভারত ব্যাস। এদিন তিনি বলেন, “এই পবিত্র শহরে মানুষ তাঁদের পাপস্খালন করতে আসে। তাই এখানে মোরারি বাপু যৌনকর্মীদের ডেকে মোটেই ঠিক কাজ করেননি”। সব মিলিয়ে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে অযোধ্যার রামমন্দির ফের শিরোনামে উঠে আসতে শুরু করেছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!