এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > আগামীকালই কি রাজ্যের বিরুদ্ধে আরো ‘পাঁচ বোমা বর্ষণ’ মুকুল রায়ের?

আগামীকালই কি রাজ্যের বিরুদ্ধে আরো ‘পাঁচ বোমা বর্ষণ’ মুকুল রায়ের?

গত ১০ ই নভেম্বর রানী রাসমণি রোডের দলীয় সভা থেকে তাঁর পুরোনো দল ও সহকর্মীদের বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ এনেছিলেন মুকুল রায়। আর তারপরেই তোলপাড় হয়েছে রাজ্য-রাজীনীতি। শুরু হয়ে গেছে বিবৃতি-পাল্টা বিবৃতি, আইনি প্যাঁচের লড়াই। কিন্তু সেদিনের সভা থেকেই মুকুল বাবু জানিয়েছিলেন, এর থেকেও আরো বড় অভিযোগ তাঁর কাছে ফাইলে বন্দী আছে, সেই ফাইলের মুখ খুলবেন যেদিন লক্ষ লোকের সভা করবেন। জনতার কাছে পৌঁছে দেবেন তাঁর অভিযোগ রাশির পার্ট ওয়ান, পার্ট টু। সূত্রের খবর এরপরেই তাঁর জাতীয়স্তরের ‘ক্যাপ্টেন’ অমিত শাহের নির্দেশে আপাতত চুপ মুকুলবাবু। গুজরাট নির্বাচনের পরই আবার খুলবেন তাঁর অভিযোগের ঝাঁপি আর তাতে নাকি কেঁপে যাবে পুরো তৃণমূল কংগ্রেস।
কিন্তু এরই মধ্যে খবর, সোমবার ও মঙ্গলবার মুকুল রায় দিল্লিতে কেন্দ্রীয় সরকারের পাঁচজন মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে পারেন। হঠাৎ করে কেন এই দিল্লি সফর? সরকারি বিবৃতি নেই কোথাও, কিন্তু সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, রাজ্য সরকারকে প্যাঁচে ফেলতে রাজ্যের একাধিক ইস্যু নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের পাঁচ মন্ত্রকে অভিযোগ জানাতে চলেছেন তিনি। সোজা ভাষায় রাজ্য সরকার তথা শাসক দলের সমস্যা আরও বাড়াতে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে তিনি রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে নালিশ জানাতেই যাচ্ছেন দিল্লির দরবারে বলে অভিমত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। যা জানা যাচ্ছে, মুকুল বাবু আগামী দুদিন পাঁচ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর দফতরের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী জিতেন্দ্র প্রসাদ, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেপি নাড্ডা, কেন্দ্রীয় সড়ক ও যোগাযোগমন্ত্রী নীতিন গড়করি, শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গাঙ্গোয়ার এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী আদিত্যনাথের সঙ্গে দেখা করে রাজ্যের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ইস্যুতে ‘বোমাবর্ষণ’ করতে পারেন। এছাড়াও রাজ্যের বিরুদ্ধে করা ‘ফোন ট্যাপিংয়ের’ অভিযোগের শুনানি আছে সোমবার, সেই মামলায় হাইকোর্ট কী নির্দেশ দেয় তা দেখেই তিনি পরবর্তী পরিকল্পনা স্থির করবেন বলে জানা গিয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!