এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > এবার কি তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিট পেতে চলেছেন মানস ভূঁইয়ার পুত্র? জল্পনা চরমে

এবার কি তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিট পেতে চলেছেন মানস ভূঁইয়ার পুত্র? জল্পনা চরমে

২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে সবং থেকে বামফ্রন্ট সমর্থিত কংগ্রেস প্রার্থী হন মানস রঞ্জন ভূঁইয়া এবং সেখান থেকে প্রায় ৫০ হাজার ভোটের ব্যবধানে জিতে বিধায়ক হন। কিন্তু ভোটের প্রচার চলাকালীন তাঁর নাম জড়িয়ে যায় সবংয়ের তৃণমূল কর্মী জয়দেব জানা হত্যাকাণ্ডে, তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ আনে স্বয়ং রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু এরপরেই পালাবদল, প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী ও বিধানসভায় বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নানের উপর একরাশ ক্ষোভ জানিয়ে দল ছাড়েন মানসবাবু, যোগ দেন তৃণমূল কংগ্রেসে। কিন্তু ছাড়েন না কংগ্রেসের হয়ে জিতে আসা বিধায়ক পদ, যা নিয়ে অনেক বিতর্ক হয়। এরপর তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মানসবাবুকে রাজ্যসভার সাংসদ করলে তিনি ইস্তফা দেন নিজের বিধায়ক পদে। আর সেই আসনে জিতিয়ে আনেন নিজের স্ত্রী গীতারানি ভূঁইয়াকে। যে পরিবারতন্ত্রের অভিযোগ তুলে কিছুদিন আগে দল ছেড়েছিলেন একদা দলের অঘোষিত দুনম্বর নেতা মুকুল রায় সেই পরিবারতন্ত্রের অভিযোগ যেন নতুন করে মান্যতা পায় এই ঘটনায়।
গতকাল গীতারানি ভূঁইয়া বিধানসভার নৌসর আলি কক্ষে অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে শপথবাক্য পথ করেন নতুন বিধায়ক হিসাবে। কিন্তু কলকাতার এক সংবাদপত্রের খবর অনুযায়ী সেখানে মানসবাবু ও গীতারানিদেবীর বক্তব্যে নতুন করে ভেসে ওঠে আরো বড় পরিবারতন্ত্রের ব্যাপার। ওই সংবাদপত্রের খবর অনুযায়ী জানা যাচ্ছে, আগামী ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিম মোদিনীপুরের কোনও কেন্দ্র থেকে মানসপুত্র কৌশিক ভূঁইয়াকে ঘাসফুলের প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে দেখার সম্ভাবনা প্রবল। এতদিন কৌশিকবাবুর মুখে রাজনীতির কথা শোনা যায় নি, বর্তমানে তিনি আমেরিকায় মেডিসিনের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসার। মা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বলে পুত্রকন্যা নিয়ে সস্ত্রীক দেশে এসেছিলেন। কিন্তু এবার আমেরিকার পাঠ চুকিয়ে আগামী বছরেই নাকি তিনি সপরিবারে দেশে ফিরছেন। এই প্রসঙ্গে তাঁর মা গীতারানি ভূঁইয়ার বক্তব্য, ছেলেকে ডাক্তারি পড়তে পাঠানো হয়েছিল মানবসেবার জন্যে। এখন যদি রাজনীতির জগতে এসে বৃহত্তর সমাজের সেবায় লাগতে পারে, তাহলে বাধা কোথায়? কৌশিকবাবু নিজে রাজনীতিতে পদার্পন নিয়ে খোলসা করে কিছু না বললেও, তাঁর কথাতেও নাকি স্পষ্ট ইঙ্গিত মিলেছে আগামীদিনে রাজনীতির ময়দানে তিনি পা রাখতে চলেছেন। আর তাই রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে, ২০১৯ এ কোন সাংসদের জায়গায় মানসপুত্র শাসকদলের টিকিট পাবেন?

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!