এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > PB Exclusive – নির্বাচনে হারের কারণে বাংলা থেকে সরছেন কৈলাশ? জেনে নিন পিছনের আসল সত্যিটা!

PB Exclusive – নির্বাচনে হারের কারণে বাংলা থেকে সরছেন কৈলাশ? জেনে নিন পিছনের আসল সত্যিটা!

Priyo Bandhu Media


প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ – আজ সকাল থেকেই বিভিন্ন মিডিয়ায় খবর প্রকাশিত হতে থাকে – বাংলায় সদ্য সমাপ্ত বিধানসভা উপনির্বাচনে ভরাডুবির কারণে, বাংলার দায়ীও থেকে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে কৈলাশ বিজয়বর্গীয়কে। তাঁর জায়গায় বাংলার দায়িত্ব পাচ্ছেন মুরলীধর রাও। শুধু কৈলাশ বিজয়বর্গীয়ই নন, বাংলার সহ-পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব থেকে অরবিন্দ মেননকেও নাকি সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে – সেখানে দায়িত্ব নেবেন মুরলীধর রাওয়ের ঘনিষ্ঠ কেউ।

এই খবর প্রকাশ্যে আসার পরেই, রীতিমত শোরগোল পরে যায় রাজ্য-রাজনীতিতে। কেননা গতকাল সন্ধ্যে পর্যন্ত বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের তরফে যে খবর ছিল – তাতে করে কৈলাশ বিজয়বর্গীয়কে বাংলায় আরও বড় দায়িত্ব দেওয়া হতে চলেছে। যতদিন না বাংলায় বিধানসভা নির্বাচন সম্পন্ন হচ্ছে ততদিন পর্যন্ত তিনি এখানকার পর্যবেক্ষকের দায়িত্বেই থাকবেন। হঠাৎ করে কি হল – যে তাঁকে একেবারে উপনির্বাচনের ভরাডুবির জন্য কাঠগোড়ায় তুলে বাংলা থেকে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে?


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এই নিয়েই খোঁজ খবর শুরু করে প্রিয় বন্ধু মিডিয়া। বিজেপির বিভিন্ন নেতার সঙ্গে কথা বলে এই খবরের সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হতে চায়। আর আমাদের সেই খোঁজ খবরের ফলে যা উঠে এসেছে তা হল – বাংলায় বিজেপির সাংগঠনিক রদবদল আসন্ন। আর সেই রদবদল এবার হবে রাজ্য স্তরেও। ফলে রাজ্যস্তরের সেই সংগঠনিক নির্বাচন পরিচালনা করার জন্য মুরলীধর রাওকে বাংলার পর্যবেক্ষক করে আনা হচ্ছে।

তবে শুধু এক মুরলীধর রাওই নন, এই গুরুত্বপূর্ণ কাজের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের হেভিওয়েট মন্ত্রী কিরণ রিজিজুকেও। আর বিজেপির এই রাজ্যস্তরের অদলবদল শুধু বাংলা নয়, গোটা দেশের সব কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল ও রাজ্যেই হতে চলেছে। আর সেই নির্বাচনী পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব নিয়ে তামিলনাড়ুতে যাচ্ছেন কৈলাশ বিজয়বর্গীয়, সঙ্গী হচ্ছেন সুধাংশু ত্রিবেদী। বিজেপির তরফে জানানো হয়েছে, কেন্দ্রীয় স্তরের সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ নেতাকেই ৩৪ টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পাঠানো হচ্ছে।

বাংলা থেকে সরার কোনো প্রশ্নই নেই! গতকালই, কলকাতায় এক অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় ও যুবনেতা শঙ্কুদেব পাণ্ডার সঙ্গে খোশমেজাজে কৈলাশ বিজয়বর্গীয়।

এই প্রসঙ্গে, হেভিওয়েট বিজেপি যুবনেতা শঙ্কুদেব পাণ্ডার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে, তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন – যে সব মিডিয়া প্রচার করছে যে বাংলার দায়িত্ব থেকে কৈলাশ বিজয়বর্গীয়কে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে, তারা খবরের কোনোরকম সত্যতা যাচাই না করেই বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে! কৈলাশজিকে তামিলনাড়ুর প্রদেশ নির্বাচনের পর্যবেক্ষক করে পাঠানো হয়েছে। উল্টোদিকে, বাংলার প্রদেশ নির্বাচনী পর্যবেক্ষক করা হয়েছে মুরলীধর রাও ও কিরণ রিজিজুকে। এর সঙ্গে রাজ্যের পর্যবেক্ষকের কোনো সম্পর্ক নেই।

শঙ্কুদেব পাণ্ডা আরও জানান, আসলে বাংলায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দল বিজেপিকে ভয় পেতে শুরু করেছে। কৈলাশজি যেভাবে বাংলায় দিনের পর দিন পড়ে থেকে এখানে গেরুয়া শক্তির উত্থান ঘটিয়েছেন, তাতে তাঁর রাজনৈতিক মস্তিষ্ককে নিয়ে ঘুম উড়েছে সব পক্ষের। কৈলাশজি লোকসভায় ২ থেকে ১৮ করেছেন, বিধানসভায় তিনি থাকলে বিজেপি কোথায় গিয়ে শেষ করবে – সেই হিসাব করেই সবাই থরহরিকম্প! তাই এইসব বিভ্রান্তিমূলক খবর ছড়িয়ে তারা নিষ্কৃতি পেতে চাইছে। কিন্তু কৈলাশজি বাংলার পর্যবেক্ষক ছিলেন-আছেন এবং নবান্নের রঙ গেরুয়া করে তবেই থামবেন।

বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের বিজেপির সাংগঠনিক নির্বাচনের পর্যবেক্ষকদের তালিকা – প্রথম পর্ব।
বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের বিজেপির সাংগঠনিক নির্বাচনের পর্যবেক্ষকদের তালিকা – দ্বিতীয় পর্ব।
বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের বিজেপির সাংগঠনিক নির্বাচনের পর্যবেক্ষকদের তালিকা – তৃতীয় পর্ব।
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!