এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > গুজরাট হাত ছাড়া হতে চলেছে বিজেপির? জল্পনা চরমে

গুজরাট হাত ছাড়া হতে চলেছে বিজেপির? জল্পনা চরমে

কংগ্রেস প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ফেললেও শেষমেশ সব বাধা কাটিয়ে গুজরাটে টানা পঞ্চম বারের মতো সরকার গঠন করে বিজেপি। কিন্তু সেই নতুন মন্ত্রিসভা শপথ নেওয়ার পাঁচ দিনের মধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি ও উপমুখ্যমন্ত্রী নীতিন পটেলের মধ্যে তীব্র মতানৈক্য শুরু। আর সেই পরিস্থিতির সুযোগ নিয়ে গুজরাটে নতুন করে সরকার গঠন করার কথা ভাবতে শুরু করে দিয়েছে কংগ্রেস। বিভিন্ন সংবাদসংস্থার প্রকাশিত খবর অনুজাযি জানা যাচ্ছে তীব্র রাজনৈতিক অস্থিরতা শুরু হয়েছে নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহের আপনদেশে।
সূত্রের খবর, বিগত মন্ত্রীসভায় উপমুখ্যমন্ত্রী নীতিন পটেলের হাতে ছিল অর্থ, নগরোন্নয়ন ও পেট্রোলিয়ামের গুরুত্ত্বপূর্ন দফতর। কিন্তু বর্তমান মন্ত্রিসভায় তাঁর ক্ষমতা অনেকখানি ছেঁটে মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানি তাঁকে রাস্তা ও নির্মাণ, স্বাস্থ্য, মেডিক্যাল শিক্ষা, নর্মদা, কালপসার ও ক্যাপিটাল প্রকল্পের মত গুরুত্ত্বপূর্ন দপ্তরের দায়িত্ত্ব দিয়েছেন। ফলে তীব্র অসন্তোষ উপ-মুখ্যমন্ত্রী শিবিরে, অন্যান্য মন্ত্রীরা নিজেদের দফতরে যোগ দিলেও গতকাল পর্যন্ত নিজের নতুন দায়িত্ত্ব বুঝে নেন নি তিনি। উল্টে তিনি তিন দিন সময় দিয়েছেন, তার মধ্যে পুরনো দফতর ফিরিয়ে না দিলে তিনি ইস্তফা দেবেন বলে তাঁর ঘনিষ্ঠ সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে। আর এই পরিস্থিতির ফায়দা তুলতে আসরে নেমে পড়েছে কংগ্রেস। পাতিদার নেতা হার্দিক পটেল খোলাখুলি আবেদন জানিয়েছেন নীতিন পটেলকে, যদি তিনি ১০ জন বিধায়ক নিয়ে বিজেপি ছাড়তে তৈরি থাকেন, তাহলে কংগ্রেসে ‘উপযুক্ত পদের’ ব্যবস্থা করে দেবেন তিনি। আর এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই রীতিমত সরগরম হয়ে পড়েছে জাতীয় রাজনীতি। এখন দেখার এই দলীয় বিক্ষোভ কিভাবে সামাল দেন নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহ জুটি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!