এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > জয়প্রকাশ মজুমদারই কি করিমপুর উপনির্বাচনে ‘ফ্যাক্টর’ হতে চলেছেন? ক্রমশ তীব্র হচ্ছে জল্পনা

জয়প্রকাশ মজুমদারই কি করিমপুর উপনির্বাচনে ‘ফ্যাক্টর’ হতে চলেছেন? ক্রমশ তীব্র হচ্ছে জল্পনা

আগামী 25 শে নভেম্বর খড়গপুর, করিমগঞ্জ এর সাথে সাথে করিমপুরেও বিধানসভা উপনির্বাচন হতে চলেছে। করিমপুর গড় অবশ্য তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি। গত লোকসভা ভোটে করিমপুরের কেন্দ্রটি তৃণমূলের দখলে ছিল। এই কেন্দ্রে লোকসভা ভোটে তৃণমূল 14 হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে ছিল বিজেপি প্রার্থীর থেকে। যদিও লোকসভা নির্বাচনের পর এ রাজ্যে বিজেপি পায়ের তলার মাটি শক্ত করে নিয়েছে। তাই এবার করিমপুর নিয়ে আলাদা ভাবনা শুরু করা হয়েছে বিজেপির পক্ষ থেকে। করিমপুরের এবার বিজেপির পক্ষ থেকে দাঁড়িয়েছেন ভূমিপুত্র জয়প্রকাশ মজুমদার।

করিমপুর বিধানসভা কেন্দ্রটি নিয়ে বিজেপির মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরেই আলোচনা চলছিল। এবার সমস্ত আলোচনার অন্তে করিমপুর বিধানসভায় উপ নির্বাচনের জন্য বিজেপি প্রার্থী হিসেবে বিবেচিত করেছে জয়প্রকাশ মজুমদারকে। উপনির্বাচনের প্রার্থী হিসেবে তিনি বেশ কয়েক কদম এগিয়ে আছেন বলেই জানা গেছে। কারণ ভোট ঘোষণার আগে ও পরে বহুবার তিনি করিমপুরে এসেছেন। এমনকি করিমপুরের যুব মোর্চা কর্মীদের নিয়ে তিনি বৈঠক করে যান।

অন্যদিকে রাজনৈতিক মহলের দাবি, করিমপুরে বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফলেই গত লোকসভা ভোটে বিজেপি পিছিয়ে পড়ে। এবার সেই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বকেই ধামাচাপা দিতে জয়প্রকাশ মজুমদার এর নাম বিবেচিত হয়েছে। অন্যদিকে বিজেপির পক্ষ থেকে এই অভিযোগ সম্পূর্ণ উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বিজেপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, জয়প্রকাশ মজুমদার এই এলাকার স্থানীয় নেতা। জয়প্রকাশ মজুমদার এর বাবা জগন্নাথ মজুমদার ছিলেন চাপড়ার বিধায়ক। জয়প্রকাশ মজুমদার হলেন একজন সুবক্তা এবং বিজেপির রাজ্য সহ-সভাপতি। তবে যদিও জয়প্রকাশ মজুমদার এর পরিবার কংগ্রেস করতেন বরাবরই। যদিও তিনিও একসময় কংগ্রেসে ছিলেন। পরবর্তীকালে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন।

বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর অভিজ্ঞতার ফলে তিনি বিজেপির রাজ্য সহ-সভাপতি হিসেবে নিযুক্ত হন। জয়প্রকাশ মজুমদার একজন সুবক্তা হিসাবে বিভিন্ন মিডিয়াতে বিজেপির হয়ে প্রচারেও যান। যে কারণে করিমপুরের বিজেপি কর্মীরা অত্যন্ত খুশি হয়েছে জয়প্রকাশ মজুমদার এখানকার উপনির্বাচনের প্রার্থী হওয়ায়।। এ প্রসঙ্গে বিজেপির উত্তরের জেলা সভাপতি মহাদেব সরকার জানিয়েছেন, জয়প্রকাশ মজুমদার হলেন করিমপুরের ভূমিপুত্র। তিনি জয়লাভ করলে অবশ্যই করিমপুরের বিধানসভা একজন সুবক্তা এবং একজন বিশিষ্ট নেতাকে বিধায়ক হিসেবে পাবে।

তবে বলাই যায়, তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত করিমপুরে বিজেপিকে বেশ জোর লাগাতে হবে এই উপ নির্বাচনে জয়লাভ করার জন্য। কারণ করিমপুরের কথা মাথায় রেখে তৃণমূল এবার প্রার্থী করেছে দীর্ঘদিনের বিশ্বস্ত সৈনিক বিমলেন্দু সিংহ রায়কে। ইতিমধ্যে করিমপুরে তৃণমূল নির্বাচনী প্রচার শুরু করে দিয়েছে বিমলেন্দু সিংহ রায়কে সামনে রেখে। তবে রাজনৈতিক মহলের একাংশের মতে, লোকসভা ভোটে বিজেপির ভালো ফলাফলকে মাথায় রেখে বলতেই হচ্ছে তৃণমূলের পক্ষে লড়াইটা এখানে সহজ হবে না। তাই প্রথম থেকেই উপনির্বাচনকে ঘিরে তৃণমূল নেতারা এভাবে ঝাঁপিয়ে পড়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। তাই এবার দেখার, ভূমিপুত্র জয়প্রকাশ মজুমদারের মত রাজনৈতিক কারিশমা সম্পন্ন ব্যক্তিত্বকে সামনে রেখে বিজেপি এই উপ নির্বাচনে জয়লাভ করতে পারেন কিনা‌!

আপনার মতামত জানান -
ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!