এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > ২০২১ এ ইনিই কি বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী মুখ? শীর্ষনেতার কথায় বাড়ল জল্পনা

২০২১ এ ইনিই কি বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী মুখ? শীর্ষনেতার কথায় বাড়ল জল্পনা

আগামী ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যে পরিবর্তনের পরিবর্তন করার ডাক দিয়েছে রাজ্য বিজেপি। গতকাল উত্তরবঙ্গ সফরকালে টেলিফোনে বিজেপি নেতা মুকুল রায় প্রিয়বন্ধু বাংলাকে জানান, বাংলায় এবার নিশ্চিত ভাবেই পরিবর্তনের পক্ষে পরিবর্তন আসতে চলেছে এবং তাই বিজেপির স্লোগান – চলো পাল্টাই, এবার বাংলা। কিন্তু রাজনৈতিক মহলে লক্ষ টাকার প্রশ্ন সেক্ষেত্রে বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী মুখ কে হবেন? এমনিতে সাধারণত বিজেপি কোনো মুখ্যমন্ত্রী মুখ সামনে রেখে রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে না, রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর বৈঠক করে তা ঠিক করে। কিন্তু বাংলার রাজনীতির ক্ষেত্র আলাদা, এখানে বর্তমানে ক্ষমতায় থাকা শাসকদলের নাম তৃণমূল কংগ্রেস এবং তৃণমূল নেত্রীর জনপ্রিয়তার সঙ্গে পাল্লা দিতে গেলে একজন মুখ্যমন্ত্রী মুখকে সামনে না রেখে এগোলে লড়াই অত্যন্ত কঠিন হতে বাধ্য। আর তাই ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে কে হতে পারেন বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী মুখ তা নিয়ে জল্পনার অন্ত নেই।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এই পরিস্থিতিতে, গতকাল বেলুড় রামকৃষ্ণ মঠ ঘুরে গেলেন ত্রিপুরার রাজ্যপাল তথা একসময়ের দাপুটে বঙ্গ বিজেপি নেতা তথাগত রায়। সেখানে তিনি জানান, ত্রিপুরার রাজ্যপাল হিসাবে তাঁর মেয়াদ উত্তীর্ন হতে আর মাত্র দুবছর বাকি। কিন্তু সেই দুবছর অতিক্রান্ত হলে তিনি আবার সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরতে চান। আর তাঁর এই ঘোষণার পরেই রাজ্য-রাজনীতিতে চূড়ান্ত জল্পনা শুরু হয়ে গেছে – তবে তিনিই কি বিজেপির সেই পছন্দের মুখ্যমন্ত্রী মুখ। কেননা তিনি সঙ্ঘের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত, ত্রিপুরার রাজ্যপাল থাকাকালীনও সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর বেশ কিছু পোস্ট রাজনীতির আঙিনায় ঝড় তুলেছে। তার উপরে তাঁর সময়েই ত্রিপুরায় ২৫ বছরের বাম জমানার অবসান ঘটিয়ে গেরুয়া শিবির ক্ষমতায় এসেছে, সুতরাং রাজ্যপাল হিসাবে তাঁর মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও আবারও তিনি ইচ্ছা করলে সাংবিধানিক প্রধান হিসাবে কাজ চালিয়ে যেতেই পারেন। কিন্তু যেহেতু তিনি আবার সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরতে চান, সুতরাং তাঁকে কোনো বড়সড় পদই দিতে পারে বঙ্গ-বিজেপি। আর তার মত দাপুটে নেতাকে মুখ্যমন্ত্রী মুখ করে এগোলে যে আখেরে বঙ্গ বিজেপিরই লাভ তা স্বীকার করে নিচ্ছেন রাজ্য বিজেপির একাংশ। তাই সবমিলিয়ে – একটি মাত্র মন্তব্যে বঙ্গ রাজনীতি জমিয়ে দিলেন তথাগত রায়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!