এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > বিশ্ব বাংলা লোগো বিতর্কে কি অ্যাডভান্টেজ মুকুল রায়?

বিশ্ব বাংলা লোগো বিতর্কে কি অ্যাডভান্টেজ মুকুল রায়?

গতকাল রানী রাসমণি রোডের বিজেপির প্রকাশ জনসভা থেকে বিজেপি নেতা মুকুল রায় দাবী করেন রাজ্য সরকারের ব্যবহৃত লোগোটি আসলে রাজ্য সরকারেরই না। কিছু নথি দেখিয়ে দাবী করেন এই লোগোটি আসলে ডায়মন্ড-হারবারের মাননীয় সাংসদ অভিষেক বান্দ্যোপাধ্যায়য়ের মালিকানাধীন। দুপুরে মুকুলবাবু এই দাবি জানবার পরে নবান্ন সূত্রে অত্রি ভট্টাচার্য জানিয়েছিলেন, মুকুলবাবুর দাবি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। বিশ্ব বাংলা লোগোটি মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৃষ্ট এবং তিনি তা রাজ্য সরকারকে দিয়েছেন ব্যবহারের জন্য, এটি কোনোমতেই কারোর ব্যক্তিগত অধীনে নেই। এরপর অভিষেকবাবুর শিবির থেকে জানা যায়, মুকুলবাবুকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে নাহলে আইনি নোটিশ পাঠিয়ে আগামী ৭ দিনের মধ্যে মুকুলবাবুকে সব তথ্যপ্রমাণ দিতে হবে, নাহলে মুকুলবাবুর বিরুদ্ধে দেওয়ানি ও ফৌজদারি মামলা করা হবে।
যদিও এই কথা সামনে আসার পর নিজের অবস্থান থেকে একটুও সরতে রাজি নন মুকুলবাবু। তিনি জানান, মামলা হলে হবে, নির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতেই এই কথা বলা হয়েছে, তাই নিজের বক্তব্য থেকে সরে আসার কোনো প্রশ্নই নেই। এরইমধ্যে জানা যাচ্ছে, অতিরিক্ত মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা নবান্ন থেকে রাজ্য সরকারের তরফে জানিয়েছেন, বিশ্ব বাংলা লোগোটি মুখ্যমন্ত্রীর সৃষ্টি। ২০১৪ সালে ট্রেডমার্কের জন্য আবেদন করেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্য সরকার আবেদন করার পর নিজের দাবি ছেড়ে দেন তিনি। কিন্তু কাল অত্রি বাবুর বক্তব্যের ও অভিষেকবাবুর শিবির থেকে আইনি লড়াইয়ের পরেও ২৪ ঘন্টার মধ্যে রাজীব সিনহার এই বক্তব্য বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। কেউ কেউ তো একধাপ এগিয়ে বলছেন, এরপরে ‘অ্যাডভান্টেজ মুকুলবাবু’, যদিও আগামী কয়েকদিন রাজনৈতিকমহল লক্ষ্য রাখবে এই লোগো বিতর্কে বলায় বাহুল্য।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!