এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে কি ‘ছাঁটার’ প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেল তৃণমূলে? জল্পনা চরমে

মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে কি ‘ছাঁটার’ প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেল তৃণমূলে? জল্পনা চরমে

একসময় তিনি ছিলেন তৃণমূল দলনেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘নয়নের মনি’, তাঁকে শুধু কলকাতার মেয়র করেই থেমে থাকেননি তৃণমূলনেত্রী, তাঁর দ্বিতীয় মন্ত্রিসভায় সসম্মানে দিয়েছেন গুরুত্ত্বপূর্ন মন্ত্রকের দায়িত্ত্ব। তিনি কলকাতার মহানাগরিক শোভন চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু প্রথমে নারদ কাণ্ডে সিবিআই ও ইডির তলব আর পরবর্তীকালে নিজের স্ত্রীর সঙ্গে গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগে বিবাহ-বিচ্ছেদের মামলা রুজু (যদিও ‘দুর্জনেরা’ বলেন সবটাই ‘সাজানো ঘটনা’) তাঁর সঙ্গে দলের দূরত্ত্ব বাড়িয়েছে, তাঁকে আর শাসকদলের অনুষ্ঠানে বা প্রকাশ্য সভামঞ্চে দেখা যায় না। কিন্তু তা সত্ত্বেও এতদিন তাঁর ‘প্রাণহানির আশঙ্কায়’ তাঁকে রাজ্য সরকার সর্বোচ্চ ‘জেড প্লাস’ নিরাপত্তা দিয়ে আসছিল।

কিন্তু গতকালই তিনি তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে তাঁর বাড়িতে অনধিকার প্রবেশের অভিযোগে থানায় এফআইআর করেন, আর তারপরেই আজ হঠাৎ করে তাঁকে কিছু না জানিয়েই তাঁর সেই ‘জেড প্লাস’ নিরাপত্তা তুলে নেয় রাজ্য সরকার। ফলে রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন উঠে গেছে সবটাই কি ‘কাকতলীয়’ নাকি হঠাৎ করে তাঁর প্রাণহানির আশঙ্কা কমে গেছে? তবে সবথেকে বড় যে জল্পনা রাজনৈতিক মহলে ঘুরছে তা হল, শোভনবাবুর নারদ কান্ড, সিবিআই, ইডি এবং পারিবারিক ও ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে জলঘোলা ক্রমশ বিড়ম্বনায় ফেলছে শাসকদলকে। আর তাই কি তাঁর মাথা থেকে দিদির ‘ভালোবাসার হাত’ উঠতে চলেছে? তারমানে কি এবার তৃণমূল কংগ্রেস থেকে তাঁর বিদায় আসন্ন? এখনো রাজ্য সরকার বা তৃণমূল কংগ্রেস বা শোভনবাবু – কারোর কাছ থেকেই এই নিয়ে সরকারি প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় নি, আর তাই ধোঁয়াশা বেড়েই চলেছে, উত্তর হাতড়ে বেড়াচ্ছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!