এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মুখ্যমন্ত্রী কি কি বললেন বাঁকুড়ার মঞ্চ থেকে একনজরে

মুখ্যমন্ত্রী কি কি বললেন বাঁকুড়ার মঞ্চ থেকে একনজরে

আজ বাঁকুড়ার সভা থেকে রাজ্যের উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরেন মুখ্যমন্ত্রী।তিনি বলেন “একসময় আমি মেদিনীপুরের বেলপাহাড়িতে গিয়ে দেখেছিলাম সেখানের মানুষ পিঁপড়ের ডিম খেয়ে জীবনধারণ করেন। জিজ্ঞাসা করে জেনেছিলাম, বছরে মাত্র দু’তিন মাস ভাত খেতে পান তাঁরা। আজ বাংলার অধিকাংশ পরিবার রেশনে দু’টাকা দরে চাল, গম পান। এর জন্য রাজ্য সরকারকে বিপুল ভর্তুকি দিতে হয়।” পাশাপাশি আরও বলেন, “এরাজ্যের মানুষের জন্ম থেকে মৃত্যু অসংখ্য প্রকল্প চালু করা হয়েছে। পরিকাঠামোর ক্ষেত্রেও বিপুল পরিবর্তন করা হয়েছে। নতুন হাসপাতাল, স্কুল, কলেজ, ITI, বিশ্ববিদ্যালয় খোলা হয়েছে। নতুন রাস্তা তৈরি করা হয়েছে। কন্যাশ্রী থেকে সবুজসাথী, আজ বিশ্বের দরবারে সমাদৃত। অধিকাংশ পর্যটন কেন্দ্রে হোম টুরিজ়ম চালুর চেষ্টা চলছে।” তিনি এদিন জানান,জল প্রকল্প তৈরি করা করা হয়েছে যার জন্য খরচ হয়েছে ১১০০ কোটি টাকা। আরো উন্নয়নের জন্য ১২০০ কোটি টাকা খরচ করা হবার খুব তাড়াতাড়ি। এছাড়া রাজ্যে বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও সেচের ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণের জন্য ২৬৬৮ কোটি টাকা খরচ করা হচ্ছে।সে কাজ চলছে।পাশাপাশি ৫০০ কোটি টাকা দিয়ে বাঁকুড়া, বীরভূম ও পুরুলিয়া জেলার জন্য চেক ড্যাম প্রকল্প তৈরি করা হচ্ছে। এদিন তিনি ৯২ কোটি ৯৩ লাখ টাকা মূল্যের ৬৪ টি প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। এবং ২৩৩ কোটি ৯৬ লাখ টাকা মূল্যের ৭০টি প্রকল্পের শিলান্যাস করেন। এদিন বিজেপিকে আক্রমণ করতেও ছাড়েননি। এদিন তিনি বিজেপিকে একটি অরাজনৈতিক দল বলেন। তিনি বলেন, “একটি অরাজনৈতিক দল উঠে এসেছে। যারা দলিত হিন্দু, মুসলিম, আদিবাসী, তপশিলিদের মধ্যে ভাগাভাগির চেষ্টা করছে। ভুল বুঝবেন না। ওদের কথা বিশ্বাস করবেন না। ওরা চক্রান্ত করে।”এছাড়া তিনি বিজেপির বিরুদ্ধে টাকা বিলানোর অভিযোগ করে বলেন, “এমনিতে ওরা দু’টাকা সাহায্য চাইলে দেয় না। কিন্তু, ভোট এলেই ওরা টাকা বিলোয়। টাকা বিলিয়ে ভোট চায়। ওই টাকায় হাত দেবেন না। ওটা পাপের টাকা। ওই টাকায় হাত দিলে শান্তি নষ্ট হবে। ওই টাকায় হাত দিলে উগ্রপন্থী তৈরি হবে। জঙ্গলমহলে একইভাবে মাওবাদীরা শান্তি নষ্ট করেছিল।”তিনি কেন্দ্র সরকারের বিরুদ্ধে ভাতা বন্ধের অভিযোগ এনে বলেন,“কেন্দ্রীয় সরকারের টালবাহানার ফলে রাজ্যের আড়াই লাখ বয়স্ক মানুষ ভাতা পাচ্ছিলেন না। আমরা সেই সমস্যার সমাধান করে দিয়েছি। কেন্দ্র ICDS প্রকল্প তুলে দিতে চেয়েছিল। আমরা তা হতে দিইনি।”

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!