এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিজেপিতে যোগদান নিয়ে মুখ খুলে এবার চমকে দিলেন দীনেশ ত্রিবেদী

বিজেপিতে যোগদান নিয়ে মুখ খুলে এবার চমকে দিলেন দীনেশ ত্রিবেদী

কিছুদিন আগেই তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বোচ্চ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও দলের অঘোষিত দুনম্বর নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগরে দিয়ে দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। সেদিনই সৌমিত্র খাঁয়ের পাশাপাশি তৃণমূল কংগ্রেস মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বোলপুরের সাংসদ অনুপম হাজরাকেও দল থেকে বহিষ্কারের কথা ঘোষণা করেন।

এরপর থেকেই জল্পনা চরমে ওঠে শুধু নাকি অনুপম হাজরাই নন – তৃণমূল কংগ্রেসের অন্তত ১০ জন সাংসদ, বিধায়ক ও নেতা গেরুয়া শিবিরে যোগ দিতে চলেছেন শীঘ্রই। ফলে একাধিক নাম নিয়ে জল্পনা চলতে থাকে। এর মধ্যে, বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে যে নামটা সবার আগে উঠছিল তা হল ব্যারাকপুরের সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী। এমনিতেই, দলনেত্রীর নির্দেশে রেলমন্ত্রক খুইয়ে তিনি দলনেত্রীর খুব একটা আস্থার তালিকায় নেই বলে জল্পনা ছিল।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

তার উপরে, তাঁর সঙ্গে দিল্লিতে একাধিক বিজেপি নেতার সুসম্পর্কের জেরে বারবার ভেসে উঠছিল তাঁর নাম। আর এবার সেই দলবদল নিয়ে মুখ খুললেন স্বয়ং দীনেশ ত্রিবেদী। তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সমস্ত জল্পনা কল্পনা উড়িয়ে দিয়ে তিনি জানান, গেরুয়া পার্টি নোংরা রাজনীতির খেলায় মেতেছে। বিজেপির তরফে এই জল্পনা তৈরি করা হচ্ছে – বিজেপিই এইসব খবর তৈরি করছে।

একইসাথে দীনেশ ত্রিবেদী জানিয়ে দেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কিংবা দলের সভাপতি অমিত শাহও যদি রাজ্য থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন, তাহলেও কোনও আসন পাবে না বিজেপি! প্রসঙ্গত, তাঁর দল তৃণমূল কংগ্রেস শুধুমাত্র কেন্দ্র থেকে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন কেন্দ্র সরকারকে হঠাতেই উদ্যোগী নয়, একই সঙ্গে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেশের পরবর্তী তথা প্রথম বাঙালি প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দেখতে ইচ্ছুক।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!