এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > কি হবে কাল পঞ্চায়েতের রায়? কি বলছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা?

কি হবে কাল পঞ্চায়েতের রায়? কি বলছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা?

বাংলায় আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচন উপলক্ষে শাসকদলের ‘লাগামহীন সন্ত্রাসের’ ফলে সব আসনে মনোনয়ন দিতে পারেনি বিরোধীরা অভিযোগে মনোনয়ন পর্বের শেষদিনে রাজ্য নির্বাচন কমিশনে যায় বিরোধীরা। কমিশন বিরোধীদের দাবি মত মনোনয়ন জমা দেবার সময়সীমা আরো একদিন বাড়িয়ে দেয়। এরপরেই তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় কমিশনকে চিঠি দিয়ে জানান, এই নির্দেশ আইন মোতাবেক হয় নি। ফলে রাত না পেরোতেই নির্দেশ প্রত্যাহার করে নেয় কমিশন। আর তারপরেই বিরোধীরা আদালতে যান, আদালত প্রথমে ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত পঞ্চায়েত নির্বাচন প্রক্রিয়ার উপর স্থগিতাদেশ দেয় এবং নির্বাচন কমিশনকে বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তর তথ্য সহ আদালতকে জানাতে নির্দেশ দেয়। কিন্তু আদালতের দেওয়া স্থগিতাদেশকে চ্যালেঞ্জ করে তৃণমূল কংগ্রেস হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে মামলা করে। বিচারপতি বিশ্বনাথ সমাদ্দার ও বিচারপতি অরিন্দম মুখোপাধ্যায় সেই মামলা খারিজ করে দেন। ফলে মূল মামলাটি এখন বিচারপতি সুব্রত তালুকদারের সিঙ্গল বেঞ্চে বিচারাধীন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

গত সোমবার থেকে সেই মামলার শুনানি প্রত্যেকদিন হচ্ছে কলকাতা হাইকোর্টে। আজ সেই মামলার শুনাই শেষ হল বিচারপতি সুব্রত তালুকদারের এজলাসে। সব পক্ষের বক্তব্য শুনে তিনি জানিয়েছেন এই মামলার রায় তিনি আগামীকাল বিকেল সাড়ে ৪ টের সময় দেবেন। ফলে সেই দিকে তাকিয়ে গোটা রাজ্যবাসী। কি রায় দিতে পারেন আগামীকাল বিচারপতি তালুকদার – এই প্রশ্ন নিয়ে আমরা গিয়েছিলাম বিভিন্ন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের কাছে। তাঁদের মতে, পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে আগামীকাল কলকাতা হাইকোর্ট যে রায়ই দিক না কেন আইনি লড়াই এখানেই থেমে যাওয়ার সম্ভাবনা অত্যন্ত ক্ষীণ। কেননা সাম্ভাব্য রায় এরকম হতে পারে –

১. নতুন করে নির্ঘণ্ট প্রকাশের নির্দেশ
২. মনোনয়ন পর্বের সময় বর্ধিত করা এবং সেই অনুযায়ী ভোটের নির্ঘন্ট প্রকাশের নির্দেশ
৩. সবদিক বিবেচনা করে চলতি নির্ঘণ্টেই ভোট

প্রথম দুটি ক্ষেত্রে স্বভাবতই খুশি হবে বিরোধীরা, অন্যদিকে তিন নম্বর ক্ষেত্রে খুশি হবে শাসকদল। কিন্তু প্রতিটি ক্ষেত্রেই অপরপক্ষের অখুশি হওয়ার যথেষ্ট কারণ থাকছে। আর তাই হাইকোর্টের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে লড়াই তখন গড়াতে পারে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে বা সুপ্রিম কোর্টে। ফলে সবমিলিয়ে পঞ্চায়েতের জট বিচারপতি তালুকদারের রায়ের পরেও যে মিটছে না তা নিয়ে একপ্রকার নিশ্চিত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!