এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > শিক্ষাক্ষেত্রে ‘ইন্টার্ন’ নিয়োগ নিয়ে রাজ্যপাল থেকে শিক্ষামন্ত্রী, WBPTTA-এর জোড়া বড়সড় উদ্যোগ

শিক্ষাক্ষেত্রে ‘ইন্টার্ন’ নিয়োগ নিয়ে রাজ্যপাল থেকে শিক্ষামন্ত্রী, WBPTTA-এর জোড়া বড়সড় উদ্যোগ


গত ১৪ ই জানুয়ারী রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন যে রাজ্যের শিক্ষাক্ষেত্রে শিক্ষকদের অপ্রতুল অবস্থা সামাল দিতে এবং রাজ্যের শিক্ষিত বেকার যুবক-যুবতীদের কথা ভেবে আগামীদিনে রাজ্যের প্রাথমিক থেকে উচ্চমাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত ইন্টার্ন নিয়োগ করা হবে। আর, রাজ্যের প্রাথমিক স্কুলগুলিতে ইন্টার্নদের মাসিক ২,০০০ টাকা এবং উচ্চ-প্রাথমিকের ক্ষেত্রে ২,৫০০ টাকা করে ইন্টার্নশিপ দেওয়া হবে।

আর মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণার ভিত্তিতে আপাতত সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে রাজ্য রাজনীতিতে। রাজ্যের শিক্ষক ও সুশীল সমাজের আতঙ্ক, মুখ্যমন্ত্রীর এই পদক্ষেপের ফলে একদিকে যেমন শিক্ষাঙ্গনে নৈরাজ্যের সৃষ্টি হবে – অন্যদিকে তেমনই কর্মসংস্থানের প্রক্রিয়া পুরোপুরি ভেঙে পড়বে। এই নিয়ে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সংগঠন নিজেদের মত করে বড়সড় আন্দোলনের ডাক দিয়েছে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর সেই পথ ধরেই এবার এই নিয়ে একসঙ্গে জোড়া পদক্ষেপ নিল ওয়েস্ট বেঙ্গল প্রাইমারি ট্রেইন্ড টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন। সংগঠনের রাজ্য সভাপতি পিন্টু পাড়ুইয়ের নেতৃত্বে আজ চার সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল আজ রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর সঙ্গে দেখা করে। এই প্রসঙ্গে পিন্টুবাবু জানিয়েছেন, রাজ্যপালের সঙ্গে আজকের বৈঠক খুবই সদর্থক হয়েছে। মাননীয় রাজ্যপাল এই নিয়ে সবটাই জানেন এবং এই নিয়ে তিনি খুব চিন্তিত বলেও জানিয়েছেন।

পিন্টুবাবুর আরও বক্তব্য, মাননীয় রাজ্যপাল এই নিয়ে নিজে উদ্যোগ নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন এবং আগামীদিনে যাতে এই প্রক্রিয়া বন্ধ হয় তার ব্যবস্থা করবেন বলে জানিয়েছেন। পাশাপাশি এই নিয়ে আমরা রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে আলোচনা করার জন্য বিকাশভবনে দেখা করে আগামী ২১ শে জানুয়ারী সময় চাই। বিকাশভবন সূত্রে জানানো হয়েছে, পার্থবাবু আপাতত অন্যকাজে ব্যস্ত থাকায় আগামী ২১ তারিখ সময় দিতে পারবেন না – তবে শীঘ্রই উনি আমাদের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন। আমরা আশাবাদী, রাজ্যপালের এই বক্তব্য ও শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে – এই ইন্টার্ন পদ্ধতি আমরা বন্ধ করতে সক্ষম হব।

রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর হাতে তুলে দেওয়া ওয়েস্ট বেঙ্গল প্রাইমারি ট্রেইন্ড টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন-এর স্মারকলিপি।
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!