এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাংলার জনগনের চাপে পরে এবার রাজ্যপালের ‘ব্যাপক’ পরিবর্তন! গুঞ্জন রাজ্য-রাজনীতিতে

বাংলার জনগনের চাপে পরে এবার রাজ্যপালের ‘ব্যাপক’ পরিবর্তন! গুঞ্জন রাজ্য-রাজনীতিতে


পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক পরিমন্ডলে রাজ্যপাল বনাম রাজ্য সরকারের সংঘাত এক নতুন মাত্র যোগ করেছে। মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই তাঁর বা তাঁর দলের সঙ্গে বিভিন্ন সময়েই রাজ্যপালের সংঘাত সামনে এসেছে। কিন্তু বাংলার রাজ্যপাল হিসাবে জগদীপ ধনকর দায়িত্ব নেওয়ার পর যে সংঘাত বঙ্গবাসী দেখেছে – তা ছাপিয়ে গেছে অতীতের সব নজিরকেই!

রাজ্য সরকারের খুঁত ধরে তীব্র আক্রমণের রাস্তায় যাওয়া রাজ্যপালকে এবার বঙ্গবাসীর প্রবল ক্ষোভের মুখে পড়তে হল। আর জন সাধারনের সেই চাপের কাছে মাথা নুইয়ে এবার রাজ্যপালের মধ্যে এল ‘ব্যাপক’ পরিবর্তন। প্রসঙ্গত, করোনা আবহের মধ্যেই গতকাল বাংলার বুকে ঝাঁপিয়ে পরে ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় আমফান। আর সেই সাইক্লোনের দাপটে প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয় বাংলার বুকে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

দিশেহারা হয়ে পড়েন সাধারণ মানুষ। কিন্তু এত সব সত্ত্বেও রাজ্যপাল জগদীপ শঙ্কর সকালে ট্যুইট করে জানান, আমফানের প্রকোপে যে প্রাণহানি ঘটেছে বা সম্পত্তি নষ্ট হয়েছে তার জন্যে আমি মর্মাহত। আমি গত কয়েকদিন ধরে ক্রমাগত বিভিন্ন এজেন্সির সাথে সম্পর্ক রেখে চলেছিলাম। তাদের দায়িত্ববোধ ফলে ন্যুনতম ক্ষতি হয়েছে। আর এই ‘ন্যুনতম’ শব্দেই ব্যাপক ক্ষোভ আছড়ে পরে রাজ্যপালের ট্যুইটে। স্মরণকালের মধ্যে এমন তীব্র ক্ষয়ক্ষতি করা সাইক্লোন বাংলার মানুষ দেখেননি – আর সেই প্রাকৃতিক দুর্যোগকেই রাজ্যপাল কিভাবে ‘ন্যুনতম’ বলে অভিহিত করছেন?

এই অভিযোগেই তাঁর ট্যুইটার আক্রমনে সাধারণ মানুষের প্রতিবাদ আছড়ে পরে। আর এই রকম সর্বব্যাপী নিন্দার ঝড়ের সামনে পর পরবর্তীকালে রাজ্যপাল নতুন ট্যুইট করেন। আর সেখানে লেখেন, সুপার সাইক্লোন আমফান ব্যাপক ও অভূতপূর্ব ক্ষতি করেছে। অবর্ণনীয় কষ্টের মধ্যে আছেন মানুষজন। NGOগুলি সমেত সকলকে অনুরোধ করছি রিলিফের কাজে ঝাঁপিয়ে পড়তে। ফলে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বঙ্গবাসীর প্রতিবাদের সামনে এবার রাজ্যপালকে আমফান নিয়ে ‘ন্যূনতম’ থেকে ‘ব্যাপক’ শব্দে পরিবর্তন করতে হল!

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!