এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ভোট কেন্দ্রে শিশুদের জন্য নয়া সিদ্ধান্ত কমিশনের জেনে নিন বিস্তারিত

ভোট কেন্দ্রে শিশুদের জন্য নয়া সিদ্ধান্ত কমিশনের জেনে নিন বিস্তারিত

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে শিশুদের নিয়ে ভোট দিতে আসা অভিভাবকদের সুবিধার কথা ভেবে অভিনব সিদ্ধান্ত নিল নির্বাচন কমিশন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায়,ছোট সন্তান নিয়ে ভোট দিতে আসেন না শিশুর মা। শিশুকে কোলে নিয়ে দীর্ঘক্ষণ ভোটের লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে সমস্যা হয় তাঁদের। এর জেরে ভোটগুলো বাদ যায় এই সমস্ত মহিলাদের। তাই ভোট প্রক্রিয়াকে এই সার্বিক ক্ষতি থেকে মুক্তি দিতে নয়া উপায় বার করলো কমিশনের কর্মকর্তারা।

সম্প্রতি একটি নতুন নির্দেশিকা জারি হয়েছে নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে,যেখানে সাফ বলা হয়েছে,প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে একজন করে প্রশিক্ষিত অ্যাটেনডেন্ট রাখতে হবে। এঁদের কাজ হবে ভোটকেন্দ্রে আসা শিশুদের দেখাশোনা করা। এর পাশাপাশি এবার ভোটে বেশ কিছু সুযোগ সুবিধার কথা বলা হয়েছে কমিশনের তরফ থেকে।

অবাধ এবং সুষ্ঠুভাবে নির্বাচনের জন্যে বছরে বিশেষভাবে সক্ষমদের জন্যে গোটা বছর ধরেই নানাধরণের কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। কোনো ভোটার যাতে বাদ না পড়ে তার জন্যে শ্লোগান তুলে সামারি রিভিশনে ঝাঁপিয়ে পড়ার নির্দেশ দেয় রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের দপ্তর। এখানে বিশেষভাবে সক্ষমদের ভোটার তালিকায় নাম তোলা নিয়েও বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

প্রশাসনিক সূত্রের খবর, লোকসভা ভোটের জন্যে ভোটার তালিকা সংশোধনের যে কাজ চলছে তাতে বিশেষভাবে সক্ষমদের যে পরিমান নাম তালিকাভুক্ত তা সত্যিই নজরকাড়া। উল্লেখ্য,রাজ্যের এবার নির্বাচনী আইকন জিজা ঘোষও বিশেষভাবে সক্ষম। এবার কমিশনের নির্দেশ,বিশেষভাবে সক্ষমদের বুথে আনার জন্যে বিশেষ ব্যবস্থা অবশ্যই নিতে হবে। প্রয়োজন হলে তাঁদের বুথে আনার জন্যে পাবলিক ট্রান্সপোর্টের ব্যবস্থাও করতে হবে।

যদি তাও সম্ভব না হয় তবে ভাড়া করা যানবহনের ব্যবস্থা রাখতে হবে। পাশাপাশি বুথে ব্যাম্পের ব্যবস্থাও রাখতে হবে যাতে সহজে তারা ভোটকক্ষে পৌছাতে পারে। এছাড়া ভোটার জন্যে এবার ভোটকেন্দ্রে পানীয় জলের ব্যবস্থাও করা হবে। হঠাৎ করে কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে ব্যবস্থা থাকবে মেডিক্যাল কিটের। যদি কোনো ভোটকেন্দ্রে বেশি বুথ থাকে তবে রাখতে হবে হেল্প ডেস্ক। বুথে থাকবে টয়লেটের ব্যবস্থাও। এসব নির্দেশিকা কমিশনের তরফ থেকে ইতিমধ্যেই রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন আধিকারিকের দপ্তরে এসে পৌছেছে।

উল্লেখ্য,লোকসভা ভোটের জন্যে নির্বাচন কমিশনের এতো জনদরদী নির্দেশিকা বুঝিয়ে দিচ্ছে সপ্তদশ লোকসভা ভোট কতোটা গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে। বর্তমানে কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী ভোটারদের সুবিধার জন্যে ভোটকেন্দ্রগুলোকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে বলেই জানা যাচ্ছে প্রশাসনিক সূত্রের খবরে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!