এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চেষ্টা- দাবি বিরোধীদের, “ভোট চুরির” বিতর্ক থামাতে “মন চুরির” দাওয়াই অনুব্রত মণ্ডলের

শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চেষ্টা- দাবি বিরোধীদের, “ভোট চুরির” বিতর্ক থামাতে “মন চুরির” দাওয়াই অনুব্রত মণ্ডলের

কিছুদিন আগেই বীরভূমের সিউড়ি থেকে ব্লক সম্মেলনে সেখানকার এক দলীয় নেতাকে ভোট চুরি করার নিদান দিয়ে খবরের শিরোনামে চলে এসেছিলেন বীরভূম জেলা তৃণমূলের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। আর যে ঘটনা নিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে দেখা যায় রাজ্যের বিরোধী দলগুলোকে।

আর বীরভূমের সিউড়ির পর শনিবার বিকেলে মুরারই 1 ব্লকের পলশা গ্রামের কারবালা মাঠে এক বুথকর্মী সম্মেলনে উপস্থিত হয়ে “ভোট চুরির” বিতর্ক থামাতে আসরে নামলেন সেই অনুব্রত মণ্ডলই।সূত্রের খবর, এদিনের কর্মী সভায় উপস্থিত হয়ে মঞ্চে এই মুরারই 1 ব্লকের প্রতিটি অঞ্চলের সভাপতিকে ডেকে বিগত বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল তুলে ধরে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তাঁরা কোন অঞ্চলে কত লিড দিতে পারবেন সেই তথ্য তাঁদের কাছ থেকে চান বীরভূমের জেলা তৃণমূলের সভাপতি।

আর হঠাৎই চাতরা অঞ্চলের সভাপতিকে মঞ্চে ডেকে নিয়ে তাঁর উদ্দেশ্যে অনুব্রত মণ্ডল প্রশ্ন করেন, “ভোট চুরি করতে পারবেন!” সাথে সাথেই অঞ্চল সভাপতি মাথা নেড়ে বলেন “হ্যাঁ, পারব।” আর এতেই বিতর্ক আরও বাড়তে পারে সেই কথা ভেবে পরক্ষনেই বীরভূম জেলা তৃণমূলের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “আমি চুরি মানে মন চুরির কথা বলেছি। মানুষের মন জয় করে ভোট নিতে হবে।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, কিছুদিন আগেই বীরভূমের সিউড়িতে গিয়ে ভোট চুরির কথা বলে বিতর্কে পড়ে গিয়েছিলেন অনুব্রত বাবু। আর এদিন সেই কথা বলতে গিয়েই তিনি “মন চুরির” কথা বলেছেন বলে শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চেষ্টা করলেন বলে মনে করছেন অনেকে। এদিকে এদিনের এই সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে উঠে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের উদ্দেশ্যে তীব্র ক্ষোভ উগরে দেন অনুব্রত মণ্ডল।

তিনি বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সকলের ঘরে ঘরে উন্নয়ন পৌঁছে দিয়েছেন। তিনি বাংলার কাজ নিয়ে ব্যস্ত। আর নরেন্দ্র মোদি নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত। ও অত্যন্ত মিথ্যেবাদী। মোদীর কথা কেউ বিশ্বাস করবেন না। তাই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতকে আরও শক্ত করুন।”

অন্যদিকে একইভাবে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে সরানোর জন্য সাধারণ মানুষের কাছে আহ্বান জানান রাজ্যের মৎস্যমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহাও। সব মিলিয়ে প্রথমে বীরভূমের সিউড়িতে “ভোট চুরির” কথা বললেও পরেরদিন মুরারইয়ে এসে সেই একই কথা বলতে গিয়েও বিতর্ক থামানোর জন্য তিনি “মন চুরি” করতে বলেছেন বলে মন্তব্য করলেন বীরভূমের জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রিয় ভাই কেষ্ট।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!