এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময়ই কর্মী-সমর্থকদের বাঁধনহারা উচ্ছ্বাস, উত্তরবঙ্গ যেন এখন থেকেই গেরুয়াময়

মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময়ই কর্মী-সমর্থকদের বাঁধনহারা উচ্ছ্বাস, উত্তরবঙ্গ যেন এখন থেকেই গেরুয়াময়


আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে সারা বাংলা থেকে 42 টি আসনের মধ্যে 22 থেকে 23 টি আসন নিজেদের দখলে রাখার জন্য রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বকে টার্গেট দিলে সারা রাজ্যের মধ্যে উত্তরবঙ্গের প্রায় প্রতিটি আসনই তাদের দখলে আসবে বলে এবার প্রায় এক প্রকার আত্মবিশ্বাসী হিসেবেই দেখা গেল মনোনয়নপত্র জমা দিতে যাওয়া বিজেপি প্রার্থী ও কর্মী সমর্থকদের।

সূত্রের খবর, সোমবার উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় বিজেপি প্রার্থীদের মনোনয়ন পর্বকে ঘিরে গেরুয়া শিবিরের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে প্রবল উচ্ছাস লক্ষ্য করা যায়। জানা যায়, এদিন দুপুরে বিশাল মিছিল করে হুডখোলা গাড়ি নিয়ে বৈরাতী নৃত্যের মাধ্যমে শোভাযাত্রা করে মদনমোহন মন্দিরে পুজো দিয়ে পুরসভার সামনে বীর চিলা রায়ের মূর্তিতে মাল্যদান করে জেলাশাসকের দপ্তরে গিয়ে নিজের মনোনয়নপত্র জমা করেন কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামানিক।

আর এই মনোনয়নপত্র দিয়ে বেরিয়ে এসেই রাজ্যের শাসকদলের উদ্দেশ্যে এই কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী পরেশ অধিকারীর বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে রীতিমতো চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক। তিনি বলেন, “তৃনমুল আমাকে গদ্দার বলছে। ওরা যদি 2 লক্ষের বেশি ভোট পায় তাহলে আমি রাজনীতি করা ছেড়ে দেব। পাঁচ বছরে ওদের সম্পত্তি 200 গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে।”

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

তবে শুধু কোচবিহারই নয়, এদিন আলিপুরদুয়ার‌ লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী জনবারলাও দলীয় কার্যালয় থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা করে নিজের মনোনয়নপত্র জমা করেন। এদিন এখানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়, জেলা বিজেপির সভাপতি গঙ্গা প্রসাদ শর্মা, বিজেপি বিধায়ক মনোজ টিগ্গা সহ অন্যান্যরা। আর এই মনোনয়নপত্র জমা দিতে যাওয়ার সময় কর্মী-সমর্থকদের আবেগ উচ্ছাস দেখে এই আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্র তারাই দখল করছে বলে জানিয়ে দেন এখানকার বিজেপি প্রার্থীর জন বারলা এবং বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ রূপা গাঙ্গুলী।

এদিকে এদিনই জলপাইগুড়ির বিজেপি প্রার্থী জয়ন্ত রায় জেলা কার্যালয় থেকে মিছিল করে প্রশাসনিক ভবনে গিয়ে নিজের মনোনয়নপত্র জমা করেন। আর বিজেপি প্রার্থীদের এহেন মহাসমারোহে মনোনয়নপত্র জমা করা এবং বিজেপির কর্মী সমর্থকদের উচ্ছাস দেখে রাজনৈতিক মহলের একাংশ মনে করছেন, এতদিন শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা করার সময় তাদের চোখে মুখে এই উচ্ছাস এবং উদ্দীপনা লক্ষ্য করা যেত।

আর এবার আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে দোরগোড়ায় বিজেপি প্রার্থীদের চোখে মুখে সেই একই উচ্ছ্বাস লক্ষ্য করা যাচ্ছে। আর এই আত্মবিশ্বাসই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে এই রাজ্য থেকে প্রচুর আসন পাইয়ে দেবে বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের। তবে শেষ পর্যন্ত কি হয় তা দেখবার জন্য তাকিয়ে থাকতেই হবে আগামী 23 মের দিকে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!