এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > উত্তরপ্রদেশ মডেল ঘুম ছুটিয়ে দেবে বিজেপির – জানিয়ে দিলেন জাতীয় রাজনীতির হেভিওয়েট নেতা

উত্তরপ্রদেশ মডেল ঘুম ছুটিয়ে দেবে বিজেপির – জানিয়ে দিলেন জাতীয় রাজনীতির হেভিওয়েট নেতা

১৯’এর লোকসভা ভোটের পর উত্তরপ্রদেশ এবং বিহারে বিজেপির কোনো নামগন্ধ থাকবে না। সপা-বসপা জোটকে সমর্থন করে এমনটা বলেই গর্জে উঠলেন রাষ্ট্রীয় জনতা দলের নেতা তেজস্বী যাদব। সম্প্রতি,কংগ্রেসকে ব্রাত্য রেখেই পুরানো বৈরিতা ভুলে বিজেপিকে পরাস্ত করতে এক ছাতার তলায় এসেছে অখিলেশ-মায়াবতী।

সপা-বসপা জোট ঘোষণার পর গতকাল সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো অখিলেশ যাদবের সঙ্গে বৈঠকে বসেন তেজস্বী। তারপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, এই জোট কেবল উত্তরপ্রদেশের বিষয় নয়। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যেখানেই এই জোটের সম্ভাবনা দেখা দিচ্ছে,সেখানেই জোট গঠনকে সঠিক দিশা দিতে সদর্থক ভূমিকা পালন করবে উত্তরপ্রদেশের এই বিজেপি বিরোধী মহাজোট।

আগামী নির্বাচনে বিহার এবং উত্তরপ্রদেশের মানুষই ঠিক করে দেবেন দেশের ভাবী প্রধানমন্ত্রী কে হবেন। নিজের বক্তব্যকে জোরালো করতে গিয়ে প্রকাশ্যে একটি পরিসংখ্যানও তুলে ধরলেন লালু প্রসাদ যাদবের ছোট ছেলে। তাঁর বক্তব্য,উত্তরপ্রদেশে ৮০টি,বিহারে ৪০টি এবং ঝাড়খণ্ডে ১৪টি লোকসভার আসন রয়েছে।

এই ১৩৪টির মধ্যে বিজেপির দখল করে রেখেছে প্রায় ১১৫টি আসন। এই দুটি রাজ্যে বিজেপি ভরাডুবি হলে কেন্দ্র বিজেপির পায়ের তলার মাটি আলগা হয়ে যাবে। আগামী দিনের সরকার গঠনের স্বপ্ন অধরাই থেকে যাবে নরেন্দ্র মোদীর,এমনটাই দাবী করলেন তেজস্বী।

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত,উত্তরপ্রদেশের ‘বুয়া-ভাতিজা’র জোট নিয়ে যে তেজস্বী যাদব কতোটা উচ্ছ্বাসিত এবং আশাবাদী,সেটার প্রমাণ মিলল জোটের পর তাঁর বক্তব্যে। জানালেন,মায়াবতী-অখিলেশের এই সিদ্ধান্তের ফলে আরএসএস মুক্ত দেশগঠনের লক্ষ্যে আরো একধাপ এগোনো গেল। গতকাল লক্ষৌতে একটি জনসভায় বিজেপি এবং আরএসএসের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে বলেন,রাজনৈতিক স্বার্থ ভুলে শুধুমাত্র ব্যক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থ করতে সাংবিধানিক সংস্থাগুলোকেও নষ্ট করতে পিছপা হচ্ছে না কিছু মানুষ।

দেশের সংবিধানের জায়গায় আরএসএসের তাত্ত্বিক নেতা এমএস গোয়ালকরের ‘বাঞ্চ অব থটস’ এবং ‘নাগপুরি ল’ প্রতিষ্ঠার চেষ্টা চলছে। বিরোধীদের একতা নষ্ট করতে সিবিআই এবং ইডির মতো কেন্দ্রীয় সংস্থাকে অন্যায়ভাবে কাজে লাগানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তেজস্বী। তবে এসবের মদত নিয়ে বিরোধীদের মনে ভয় সৃষ্টি করে ঐক্য নষ্ট করা যাবে না। এমনটাই হুঁশিয়ার রাষ্ট্রীয় জনতা দল সুপ্রিমোর।

পাশাপাশি আরো জানিয়েছেন,লোকসভা ভোটই প্রমাণ দিয়ে দেবে,’চৌকিদার’ দেশের মানুষের সঙ্গে কীভাবে প্রতারণা করেছেন। উত্তরপ্রদেশে সপা-বসপা জোটকে সাংগঠনিকভাবে সমর্থন করবে আরজেডি,এমনটাই দাবী করলেন তেজস্বী। প্রসঙ্গত,উত্তরপ্রদেশে সপা-বসপা আসন রফা করলেও আরএলডির মতো আঞ্চলিক দলকেও বিচ্ছিন্নভাবে কিছু আসন ছেড়ে দেওয়া হবে। এর বিনিময়ে সপা,বসপাকে আসন ছাড়বে আরজেডি। বিজেপিকে আক্রমণ শানিয়ে এদিন তেজস্বী যাদব আরো বললেন,‘দিল্লি থেকে কলকাতা, মানুষ বিজেপিকে নিয়ে অসন্তুষ্ট। তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে মানুষ।’

এদিন বৈঠকের পর সাংবাদিক সম্মেলন করেছিলেন অখিলেশ তেজস্বী। তেজস্বী যাদবের মতো একই সুরে বিজেপিকে হুঁসিয়ারী দেন সপা প্রধানও। বলেন,’আমি বিজেপিকে এই বার্তাই দিতে চাই যে ওদের হাজার চেষ্টা সত্ত্বেও আমরা সমাজবাদীরা অবস্থান বদলাব না।’ উল্লেখ্য,রবিবার রাতে লক্ষৌ এসেছিলেন আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব। সেখানে প্রাক্তন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী তথা বসপা সুপ্রিমো মায়াবতীর সঙ্গে দেখা করেন তিনি।

এরপরই তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি পোষ্ট করেন তাতে দেখা যাচ্ছে মায়াবতী পা ছুঁয়ে আশির্বাদ নিচ্ছেন তেজস্বী। এ নিয়ে তাকে প্রশ্ন করা হলে,সমস্ত বিতর্ক এড়াতে তিনি বলেন,যেহেতু তিনি মায়াবতীর থেকে বয়সে অনেকটাই ছোট তাই মায়াবতীকে আগাম জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে তাঁর আশির্বাদ নিয়েছেন তেজস্বী। অভিজ্ঞ এই নেত্রীর উপদেশ তাঁর ভবিষ্যতে রাজনৈতিক চলা পথের পাথেয় হবে বলেই জানালেন আরজেডি নেতা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!