এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > অর্থাভাবে শিকেয় উঠেছে উন্নয়ন! মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বিশেষ ফান্ড পথে এই জেলা পরিষদ

অর্থাভাবে শিকেয় উঠেছে উন্নয়ন! মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বিশেষ ফান্ড পথে এই জেলা পরিষদ

আর কিছুক্ষণের অপেক্ষা। তারপরেই ফের উত্তরবঙ্গ সফরে আসছেন মুখ্যমন্ত্রী। আর তাঁর এই উত্তরবঙ্গ সফরকে কাজে লাগিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদ বিশেষ ফান্ডের দাবি করবে বলে জানা গেল। কিন্তু যেক্ষেত্রে মুখ্যমন্ত্রী প্রায় প্রত্যেককেই সরকার বিপুল পরিমাণ অর্থ দিয়েছেন উন্নতির জন্য বলে দাবি করেন, সেখানে কেন আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদ মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বাড়তি ফান্ডের দাবি জানাবে!

বস্তুত, গত 11 মাস আগে এই আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের বোর্ড গঠন করেছে তৃণমূল। তবে এই সময়ের মধ্যে নিজেদের রাস্তা সংস্কার বাবদ মোট পাঁচ কোটি টাকা মিলেছে রাজ্য সরকারের কাছ থেকে। তাই এর বাইরে আর কোনো টাকা না মেলায় অনেক কাজই থমকে গিয়েছে। ফলে সামনের বিধানসভা নির্বাচনের আগে যদি জেলা পরিষদ সামান্যতম কাজ দেখাতে না পারে, তাহলে ভোটবাক্সে তার প্রভাব পড়বে এমনটাই মনে করছেন জেলা পরিষদের তৃণমূলের পদাধিকারীরা।

আর তাই তো দলীয় নেত্রী তথা প্রশাসনিক প্রধানের সফর কালে তার কাছে জেলা পরিষদের উন্নতির জন্য বাড়তি অর্থ দাবি করবে তৃণমূল পরিচালিত আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের সভাধিপতি শীলা দাস সরকার বলেন, “অর্থাভাবে অনেক কাজ করা যাচ্ছে না। তাই 22 তারিখ উত্তরকন্যার প্রশাসনিক বৈঠকে আমরা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের জন্য স্পেশাল ফান্ডের দাবি জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

একইভাবে এখন যদি সময়ে কাজ না করা যায়, তাহলে বিধানসভা নির্বাচনে তাদের কপালে পরাজয় ছাড়া আর কিছু জুটবে না বলে জানিয়েছেন আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের এক কর্মাধক্ষ। তবে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তৃণমূল পরিচালিত জেলা পরিষদ আর্থিক দাবি করার পরিকল্পনা করলে তা নিয়ে পাল্টা তৃণমূলকেই কটাক্ষ করতে দেখা গেছে ভারতীয় জনতা পার্টির নেতৃত্বদের।

এদিন এই প্রসঙ্গে আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের বিরোধী দলনেত্রী বিজেপির কল্পনা নাগ বলেন, “তৃণমূলকে ভোট দিয়ে যে কোনো লাভ হয়নি, মানুষ এখন সেটা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে। তৃণমূল বোর্ডকে ঝুলি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে এখন স্পেশাল ফান্ডের আবেদন করতে হচ্ছে।”

একইভাবে এই প্রসঙ্গে আলিপুরদুয়ার জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত রায় বলেন, “মানুষকে ভোট দিতে না দিয়ে গায়ের জোরে তৃণমূল জেলা পরিষদের দখল নিয়েছে। এখন মানুষ দেখছে টাকার অভাবে পরিষদের সব কাজ বন্ধ। তাই বিধানসভা ভোটে এই জেলার মানুষ তৃণমূলকে উচিত শিক্ষা দেবে।”

সব মিলিয়ে দলীয় নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উত্তরবঙ্গ সফরে আসলে নিজেদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে ও বিধানসভা ভোটে জয়লাভ করতে এখন সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছেই বাড়তি আর্থিক অনুদানের দাবি জানাতে চলেছে তৃণমূল পরিচালিত আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদ। কিন্তু নিজের দলের পরিচালনায় চলা আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের সভাধিপতি সহ কর্মাধ্যক্ষের এই আবেদন দলীয় নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মেনে নেন কিনা, সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!