এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ‘উন্নয়ন’ বোঝাতে গিয়ে নেত্রীর ‘গালের’ প্রসঙ্গ টেনে এনে বিতর্ক বাড়ালেন মন্ত্রী

‘উন্নয়ন’ বোঝাতে গিয়ে নেত্রীর ‘গালের’ প্রসঙ্গ টেনে এনে বিতর্ক বাড়ালেন মন্ত্রী

রাজনীতির মঞ্চে নেতা-নেত্রীদের মধ্যে তর্কাতর্কি, কটাক্ষ চলতেই থাকে। একে অন্যের প্রতি আক্রমণে ভুলে যায় নিজের সীমা-পরিসীমা। রাজনৈতিক নেতারা একে অন্যের প্রতি ব্যঙ্গাত্মক কটুক্তি করতে গিয়ে শালীনতার সীমা প্রায়ই অতিক্রম করেন। দিনদিন রাজনীতির মঞ্চে যেন শালীনতার সীমা অতিক্রম করাটা নিয়মের পর্যায় পড়ে গেছে। এবার উন্নয়ন প্রসঙ্গে শালীনতার সীমা অতিক্রম করে বিতর্কিত মন্তব্য করলেন মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস নেতা তথা মন্ত্রী পিসি শর্মা। তাঁর মন্তব্যের ফলে রাজনৈতিক মহলে চরম বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে।

এদিন মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস নেতা পিসি শর্মা রাস্তার উন্নয়নের কথা বলতে গিয়ে বিজেপি নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র গালের সাথে রাস্তার তুলনা করেন। তিনি বলেন, ‘বর্তমানে মধ্যপ্রদেশের রাস্তাগুলি কৈলাস বিজয়বর্গীয়র গালের মত। রাস্তাগুলির প্লাস্টিক সার্জারি দরকার।’

গতকাল মধ্যপ্রদেশের পাবলিক ওয়ার্কস ডেভেলপমেন্ট মন্ত্রী সজ্জন কুমারের সঙ্গে ভোপালের হাবিবগঞ্জ এলাকাতে গিয়েছিলেন পিসি শর্মা। সেখানে রাস্তার হাল দেখেই পিসি শর্মা এধরনের মন্তব্য করেন বলে জানা গেছে। কৈলাস বিজয়বর্গীয় উদাহরণ টেনেই পিসি শর্মা থামেননি। এরপরে তিনি হেমা মালিনী কে নিয়েও মন্তব্য করেন। পিসি শর্মা দাবি করেন, মধ্যপ্রদেশের রাস্তাগুলি এবার কংগ্রেস সরকার বিজেপি নেত্রী হেমা মালিনীর গালের মতো মসৃণ ভাবে তৈরি করবে।

এদিন পিসি শর্মা মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানের করা কিছুদিন আগের করা এক উক্তিকে উদ্ধৃত করে ব্যাঙ্গ করেন। সূত্রের দাবি, একসময় শিবরাজ সিং চৌহান বলেছিলেন, মধ্যপ্রদেশের রাস্তার সাথে ওয়াশিংটনের রাস্তায় তুলনা করা চলে। এমনকি মধ্যপ্রদেশের রাস্তার হাল ওয়াশিংটনের রাস্তার থেকেও ভালো। এই প্রসঙ্গ টেনে এনে পিসি শর্মা বলেন, ‘মধ্যপ্রদেশের রাস্তা তো ওয়াশিংটনের মত ছিল। সেই রাস্তাগুলোর কি হল?

একটু ভারী বৃষ্টি হলেই রাস্তায় দেখা দেয় খানাখন্দ। বর্তমানে রাজ্যের রাস্তাগুলো বসন্তরোগের দাগের মত। রাস্তাগুলোকে দেখতে কৈলাস বিজয়বর্গীয়র গালের মত হয়ে গেছে। আগামী 15 – 20 দিনের মধ্যে রাস্তাগুলিকে আমরা হেমা মালিনীর গালের মত চকচকে করে তুলব।’

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এ প্রসঙ্গে এদিন পিসি শর্মা একটি টুইট করেন। তিনি টুইটে মন্তব্য করেন, ‘রাজ্য সরকার রাস্তার হাল ফেরানোর স্বার্থে বিপুল অর্থ বরাদ্দ করেছে। আমরা সেই অর্থ ব্যবহার করে শীঘ্রই রাস্তাগুলির মেরামত করব।’

প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন আগে মধ্যপ্রদেশ বিধানসভায় বিরোধী দলনেতা অর্থাৎ বিজেপির গোপাল ভার্গব মধ্যপ্রদেশের রাস্তার হালহকিকত নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথকে প্রশ্ন করেছিলেন। এবং কমলনাথ নেতৃত্বাধীন সরকারের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছিলেন। রাজনৈতিক মহলের দাবি, সেই ঘটনার পাল্টা তোপ হিসাবে পিসি শর্মা এই বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন।

সমস্ত ঘটনা পর্যবেক্ষণ করে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, রাজনীতির ক্ষেত্রে রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীরা কোন সময়ই কথাবার্তায় শালীনতার সীমা মানেন না। ফলে যারা এই শালীনতার সীমা অতিক্রম করেন, সাধারণ মানুষও তাঁদের সম্মানের নজরে দেখে না।

অন্যদিকে, মধ্যপ্রদেশের বিরোধীদলের দাবি, রাস্তার সঙ্গে শারীরিক অংশের তুলনা করে কংগ্রেস নেতা পিসি শর্মা নিজের নিচু মানসিকতার পরিচয় দিয়েছেন। পিসির শর্মার বক্তব্যকে ঘিরে ইতিমধ্যে রাজনৈতিক মহলে চরম বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। আপাতত এই বিতর্ককে কেন্দ্র করে মধ্যপ্রদেশের রাজনৈতিক জল কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় সেদিকেই নজর সবার।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!