এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > অর্থের জন্য থমকে যাবে না উন্নয়ন, 52 টি দপ্তরের অর্থ যোগানের জন্য নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের

অর্থের জন্য থমকে যাবে না উন্নয়ন, 52 টি দপ্তরের অর্থ যোগানের জন্য নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের

এবার রাজ্যের উন্নয়নের গতিকে আরও ত্বরান্বিত করতে এবং সাধারণ মানুষের কাছে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দপ্তর গুলির উদ্যোগে পৌঁছে যাওয়া বিভিন্ন জনমুখী পরিষেবা আরও দ্রুত পৌঁছে দিতে রাজ্যের 12 টি দপ্তরের 100% বরাদ্দ টাকাই ছেড়ে দিল রাজ্য অর্থ দপ্তর। যার মধ্যে রয়েছে, আবাসন, সেচ, জনস্বাস্থ্য কারিগরি, পূর্ত, নারী, শিশু, সমাজকল্যাণ, পুর ও নগরোন্নয়ন, জলসম্পদ উন্নয়ন, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা, পঞ্চায়েত ও গ্রামীন উন্নয়ন, স্বাস্থ্য এবং খাদ্যর মত দপ্তরগুলি।

জানা গেছে, এই দপ্তরগুলি তাদের প্রথম ভাগের টাকা বেশ ভালোমতোই খরচ করেছে। আর তাই তাদের কাজের গতি আরও বৃদ্ধি করতে পুরো টাকাই ছেড়ে দিল অর্থ দপ্তর। তবে শুধু এই 12 টি দপ্তরই নয়, বাকি 40 টি দপ্তরকে কাজের জন্য 90% করে টাকা দিয়েছে অর্থদপ্তর।

সূত্রের খবর, এই চল্লিশটি দপ্তর যদি আগামী দু মাসে তাদের কাজ ঠিকমত দেখাতে পারে তাহলে আগামী জানুয়ারি মাসে তাদের বাকি 10% টাকাও দিয়ে দেবে অর্থ দপ্তর। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আগে 1 লা এপ্রিল রাজ্যের দপ্তর গুলিকে কাজের জন্য 30% টাকা দিত অর্থ দপ্তর। পরবর্তীতে সেপ্টেম্বর মাসে আরও 70 শতাংশ দেওয়া হত এবং বাকি টাকাটা দেওয়া হত জানুয়ারি মাসে। কিন্তু 2011 সালে রাজ্যে পালাবদলের পরই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে এই নিয়ম একেবারে পাল্টে গেছে।

এখন দপ্তরগুলি কাজ করতে ঠিক সময়ে টাকা পেতে শুরু করেছেন। গত বছর থেকেই মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে এই নিয়ম চালু করে দেয় অর্থ দপ্তর। যার ফলে পয়লা এপ্রিল রাজ্যের বিভিন্ন দপ্তরগুলির কাজের জন্য 70 শতাংশ টাকা ছেড়ে দেয় অর্থ দপ্তর। আর তার পরে কাজের ভিত্তিতে বাকি টাকা ছাড়া হয়।

আর এবারেও সেই রাজ্যের বিভিন্ন দপ্তরগুলির কাজে যাতে কোনো রকম ঢিলেমি না হয় তার জন্য গতকাল অতিরিক্ত মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী রাজ্যের 12 টি দপ্তরের স্টেট প্ল্যান হেডে 100% টাকা ছাড়ার নির্দেশ জারি করেন। জানা গেছে, আগামী 30 শে মার্চের মধ্যেই এই বরাদ্দকৃত অর্থ যদি খরচ, করতে না পারে কোনো দপ্তর তাহলে সেই টাকা পরবর্তী এক মাসের মধ্যে অর্থ দপ্তরে ফেরত দিতে হবে। প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই এই টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার নির্দেশিকা জারি হওয়ার পর রাজ্যের অর্থ দপ্তরে প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা ফেরত এসেছিল।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর সেই টাকা দিয়ে রাজ্যের বিভিন্ন রাস্তা, উড়ালপুল পরিকাঠামো সংস্কার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আর তাই বর্তমান আর্থিক বছরে যদি কোনো দপ্তর তাদের টাকা খরচ করতে না পারে এবং সেই টাকা যাতে নষ্ট না হয় তাই তা অর্থ দপ্তরে ফেরত পাঠিয়ে রাজ্যের অন্যান্য উন্নয়নমূলক কাজ করার পক্ষে সায় দিয়েছে রাজ্য সরকার। সব মিলিয়ে রাজ্যের উন্নয়নের গতিকে আরও ত্বরান্বিত করতে অভিনব পদক্ষেপ রাজ্য সরকারের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!