এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > উন্নাও গনধর্ষণ মামলায় বড় ধাক্কা বিজেপির, সত্যি সামনে আনল সিবিআই

উন্নাও গনধর্ষণ মামলায় বড় ধাক্কা বিজেপির, সত্যি সামনে আনল সিবিআই

উন্নাও গণধর্ষণ কাণ্ডে সিবিআই তদন্তে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। সিবিআই আধিকারিকেরা আজ জানিয়ে দিলেন, উন্নাও কাণ্ডে ধর্ষিতার অভিযোগই সত্যি। গত বছরের ৪ জুন বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সিং সেঙ্গার তাঁর মাখি গ্রামের বাড়িতে ওই মেয়েটিকে ধর্ষণ করে, আর সেই সময় তাঁর স্ত্রী শশী সিং দরজার বাইরে পাহাব়ায় ছিলেন। স্থানীয় পুলিশ রাজনৈতিক চাপের সামনে এই ঘটনার এফআইআর প্রথমে না নিতে চাইলেও, অবশেষে ২০১৭ সালের ২০ জুন প্রথম এই ঘটনার এফআইআর নেওয়া হয়, কিন্তু সেখানেও বিজেপি বিধায়কের নাম ছিল না। পরবর্তীকালে এই নিয়ে দেশ তোলপাড় হলে উত্তরপ্রদেশ সরকার এই ঘটনার ভার সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেয়। আর তারপরেই সিবিআইয়ের তদন্তে সামনে এল এই বিস্ফোরক তথ্য।

এই ঘটনায়, ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে ধর্ষিতার বয়ান নথিভুক্ত করেছে। সেই বয়ান ও সিবিআইয়ের তদন্ত অনুসারে জানা গেছে, বিধায়কের স্ত্রী চাকরি দেওয়ার নাম করে ধর্ষিতাকে বাড়িতে ডেকে আনে, আর তারপর বিধায়ক তাঁকে ধর্ষণ করেন। তারপর ক্রমাগত হুমকি চলতে থাকে, ফলে ভয়ে মুখ খুলতে পারেনি মেয়েটি। কিন্তু এরপরেই, শুভম সিং, আওয়াধ নারায়ণ এবং ব্রিজেশ যাদব নামে তিনজন তাঁকে অপহরণ করে একটি গাড়িতে রেখে পরবর্তী ৮ দিন ধরে ক্রমাগত ধর্ষণ করতে থাকে। সিবিআই আরো জানিয়েছে, স্থানীয় পুলিশের তরফে তদন্তে শুধু গাফিলতি ছিল তাই নয়, তারা ইচ্ছাকৃতভাবে অপরাধীদের বাঁচানোর চেষ্টা করে গিয়েছে। এমনকি, পুলিশ মেয়েটির মেডিকেল পরীক্ষা নিতেও বিলম্ব করেছে। বা ধর্ষণের অভিযোগে যা ব্যাশ্যা করণীয় সেইসব নমুনা ফরেনসিক ল্যাবরেটরিতে পাঠানোই হয় নি। কিন্তু প্রমান লোপাটের এত চেষ্টা সত্ত্বেও – তা ব্যর্থ, সিআরপিসি-এর ১৬৪ ধারায় দেওয়া বয়ানকে আদালত প্রমাণ হিসেবেই গ্রাহ্য করে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!