এখন পড়ছেন
হোম > খেলা > বিতর্কিত মন্তব্য প্রসঙ্গে ক্ষমা চাইলেন টুটু বসু, জেনে নিন কি বললেন তিনি

বিতর্কিত মন্তব্য প্রসঙ্গে ক্ষমা চাইলেন টুটু বসু, জেনে নিন কি বললেন তিনি

দীর্ঘ ৮ বছর পর কলকাতা লিগ জয় করেছে মোহনবাগান।মোহনবাগান ক্লাবের সদস্য সমর্থকরা আনন্দে আত্মহারা। আনন্দে মশগুল ক্লাবের প্রেসিডেন্ট টুটু বসু নিজেও।
আর তার পরেই কেমন অনুভূতি হচ্ছে ?সেই প্রসঙ্গে আবেগঘন হয়ে মন্তব্য করে ফেলেন,’সাত বছর ধরে মেয়ে হচ্ছিল। তারপর এবার ছেলে হল। যেরকম আনন্দ হয় সেরকমই আনন্দ হচ্ছে।’ আর এই নিয়েই উত্তাল হয়ে ওঠে সোশ্যাল মিডিয়া সমেত খেলোয়াড়প্রেমীমহল। বিতৰ্ক ছড়ায় সব মহলে। অভিযোগ ওঠে মহিলাদের অপমানের। কন্যাসন্তানদের নিয়ে এহেন মন্তব্যে বিতর্কের ঝড় ওঠে।

আর সেই নিয়েই আজ ক্ষমা চাইলেন টুটু বসু। তিনি জানালেন, তবে আনন্দের দিনে কাউকে আঘাত দিতে তিনি চাননি। নিজের মন্তব্যের জন্য তিনি দুঃখিত ও ক্ষমাপ্রার্থী বলে চিঠিতে জানিয়েছেন টুটুবাবু।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তিনি চিঠিতে লেখেন, ‘দীর্ঘ আট বছর পর লিগ জয়ের আনন্দে আমি আবেগে ভেসে গিয়েছিলাম। আর ম্যাচের বিরতিতে আবেগের বশবর্তী হয়েই কিছু কথা বলে ফেলেছিলাম। আমি কখনওই কথাগুলো বলতে চাইনি। আনন্দের দিনে কাউকে আঘাত করার অভিপ্রায় আমার ছিল না। আমি দুঃখিত। আমি তাঁদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী।কালকের লিগ জয়ের পর আবেগের মুহূর্তে, ওই প্রেক্ষাপটে বলা বক্তব্য নিয়ে আমার নিজেরই অনুশোচনা হচ্ছে। আমার বাড়িতে আমার পুত্রবধূরা আছে। নাতনি আছে। তাই কন্যাসন্তানের গুরুত্ব আমি জানি। আমার ব্যক্তিগত হিশ্বাস, পুত্র বা কন্যাসন্তান যেই হোক না কেন সবাই আমার পরিবারের আত্মজ। আমি আমার বক্তব্য প্রত্য়াহার করছি। শেষে আবারও বলছি, কোনও মানুষকে আমি কষ্ট দিতে চাইনি।’

 

Top
Close
error: Content is protected !!