এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নজরে ২১ শে জুলাই – দেশের প্রথম বাঙালি প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নে বিভোর তৃণমূলী জনতা

নজরে ২১ শে জুলাই – দেশের প্রথম বাঙালি প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নে বিভোর তৃণমূলী জনতা

মাঝে মাত্র আর একটা দিন – আর তারপরেই কলকাতার বুকে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের ‘হৃদয়ের অনুষ্ঠান’ – শহীদ দিবস। একে এ বছর শহীদ দিবসের রজত জয়ন্তী বর্ষ, তার উপরে পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিপুল জয়ের পর এই প্রথম কেন্দ্রীয় সমাবেশ। তার থেকেও বড় কথা আর কয়েক মাসের মধ্যেই লোকসভা নির্বাচন – তৃণমূল কর্মীদের মনের সুপ্ত বাসনা দলনেত্রীকে দেশের প্রধানমন্ত্রীর আসনে দেখার – তাই সবমিলিয়ে দলনেত্রী কি বার্তা দেন সেদিকেই তাকিয়ে ঘাসফুল শিবিরের কর্মী-সমর্থকেরা।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

ফলে সবমিলিয়ে এবার কলকাতায় শহীদ দিবসে রেকর্ড ভিড়ের আশা করছেন তৃণমূলের শীর্ষনেতৃত্ত্ব। তৃণমূল কংগ্রেস মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মতে, জেলা থেকে বুথস্তরে ‘কলকাতা চলো’ সফল করার আবেদন জানিয়ে ধারাবাহিক প্রচার হয়েছে, তাই এবারের জনসমাগম সব রেকর্ড ভেঙে দেবে। আর তাই বুধবার সভার তিনদিন আগে থেকেই দূর-দূরান্ত থেকে মহানগরে আসতে শুরু করেছেন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা।

দলের অন্যতম নির্ভরযোগ্য নেতা সুজিত বসু জানিয়েছেন, মূলত উত্তরবঙ্গের মানুষই আসতে শুরু করেছেন, গতকাল কোচবিহার থেকে কয়েক হাজার মানুষ সমাবেশে যোগ দিতে শহরে এসেছেন। বাইপাসের ধারে মিলনমেলায় তাঁদের ঠাঁই হয়েছে, এখানে প্রায় ৩৫ হাজার লোকের রাত্রিবাস ও দুবেলা খাবারের ব্যবস্থা হয়েছে। অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে জানা গেছে, কসবার গীতাঞ্জলি স্টেডিয়াম, বড়বাজার, চিৎপুরের বেশ কয়েকটি ধর্মশালা, গেস্ট হাউস ভাড়া নেওয়া হয়েছে দূরের জেলা থেকে আসা কর্মী-সমর্থকদের থাকার ব্যবস্থা করতে। সবমিলিয়ে সাজো সাজ রব তৃণমূলের অন্দরে – অপেক্ষা শুধু কখন দলনেত্রী হাতে মাইক তুলে নিয়ে তাঁর অননুকরণীয় ভঙ্গিতে দলের ‘যোদ্ধাদের’ ঝাঁপিয়ে পড়ার নির্দেশ দেবেন – দেশের প্রথম বাঙালি প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন সত্যি করতে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!