এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > হেভিওয়েট তৃণমূল প্রার্থীকে হারিয়ে তৃণমূলে যোগ দিতেই অস্ত্র মামলায় গ্রেপ্তার “নির্দল” পঞ্চায়েত সদস্য

হেভিওয়েট তৃণমূল প্রার্থীকে হারিয়ে তৃণমূলে যোগ দিতেই অস্ত্র মামলায় গ্রেপ্তার “নির্দল” পঞ্চায়েত সদস্য

রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েও বিরোধীদেরকে বোর্ড গঠন করতে দেওয়া হচ্ছে না বলে শাসকদলের বিরুদ্ধে যখন সোচ্চার হচ্ছে বিরোধীরা, ঠিক তখনই বোর্ড গঠনের আগেই গ্রেপ্তার হলেন তৃণমূলের এক পঞ্চায়েত সদস্য। বৃহস্পতিবার এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রবল চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে বেলিয়াবেড়া থানার তপসিয়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। জানা যায়, এই বেলিয়াবেড়ার ১১ আসন বিশিষ্ট তপসিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতে এবার তৃণমূল ৬, বিজেপি ২ এবং নির্দল ১ টি আসন পেয়েছিল।

আর এই নির্দল প্রার্থী হিসাবে একটি আসন পেয়েছিলেন তৃণমূলের পক্ষ থেকে টিকিট না পাওয়া আন্ধারিয়া সংসদের ভবেশ পানি নামে এক ব্যাক্তি। জানা যায়, বিগত পঞ্চায়েত ভোটে তিনি অঞ্চল তৃনমূলের সভাপতি নিরঞ্জন দাসের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছিলেন। পরবর্তীতে এই আসন থেকে জয়ীও হন তিনি। কিন্তু তৃণমূল প্রার্থী নিরঞ্জন দাসের নির্বাচনী প্রস্তাবক বিকাশ নায়েকের বাড়িতে ঢুকে গত ৬ ই মে গুলি করার অভিযোগ ওঠে সেই ভবেশবাবুর বিরুদ্ধে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

ফলে, ভবেশ পানির বিরুদ্ধে পুলিশের পক্ষ থেকে অস্ত্র ও মারপিটের ধারায় মামলা রুজু করা হয়। আর তারপর থেকেই দীর্ঘদিন ধরেই ‘ফেরার’ ছিলেন অভিযুক্ত ভবেশ পানি। এদিকে ভোটে জিতেই জেলা পরিষদের অধ্যক্ষ স্বপন পাত্রের সাহায্যে জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান সুকুমার হাঁসদার হাত থেকে দলীয় পতাকা নিয়ে তৃণমূলে যোগ দেন তিনি। কিন্তু, বোর্ড গঠনের আগে ভবেশ পানির সন্ধান পেয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সূত্রের খবর, শুক্রবার তাঁকে আদালতে তোলা হবে।

এদিকে সূত্রের খবর, সর্বসম্মতিক্রমে এই পঞ্চায়েতের প্রধান হিসেবে সুষমা সিং এবং উপপ্রধান হিসেবে মল্লিকা সিং নির্বাচিত হন। অন্যদিকে যখন এই পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠনের প্রক্রিয়া চলছে, ঠিক তখনই নির্দল থেকে তৃণমূলে যোগ দেওয়া এক পঞ্চায়েত সদস্য ভবেশ পানির গ্রেপ্তারির প্রসঙ্গে এদিন জেলা পরিষদের অধ্যক্ষ স্বপন পাত্র সংবাদমাধ্যমকে জানান, “ভবেশবাবু একটি মামলায় অভিযুক্ত ছিলেন। বোর্ড গঠনের সময় কি হয়েছে তা খোঁজ নিয়ে দেখব”। সব মিলিয়ে বোর্ড গঠনের সময়েই নির্দলের টিকিট জয়ী বর্তমান তৃনমূল সদস্য গ্রেপ্তার হওয়া নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!