এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > আরামবাগে খোদ বিধায়কের ভাইকে মারধর, বাড়ি ভাঙচুর – পিছনে কি গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব?

আরামবাগে খোদ বিধায়কের ভাইকে মারধর, বাড়ি ভাঙচুর – পিছনে কি গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব?

Priyo Bandhu Media

এবার পারিবারিক বিবাদে জড়িয়ে পড়ার কারণেই প্রবল মারধরের শিকার হতে হল আরামবাগের মায়াপুর ২ নম্বর পঞ্চায়েতের তৃণমূল উপপ্রধান তথা আরামবাগের তৃণমূল বিধায়কের ভাই অলোক সাঁতরাকে। কিন্তু হঠাৎ কি এমন হল, যার কারণে মারধরের শিকার হলেন তিনি? সূত্রের খবর, আরামবাগের বিধায়ক কৃষ্ণচন্দ্র সাঁতরার ভাই অলোক সাঁতরা তাঁর দুই সঙ্গীকে নিয়ে গত বৃহস্পতিবার কালীদোনা এলাকায় এসেছিলেন।

জানা যায়, সেখানে কার্তিক দাস নামে এক ব্যক্তির পারিবারিক গন্ডগোলে তাঁরা হস্তক্ষেপ করেন আর এরপরই পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে – শুরু হয় বচসা। যা পরে হাতাহাতিরও রূপ নেয় বলে অভিযোগ। এদিকে এই ঘটনায় সেই অলোক সাঁতরাকে প্রাথমিক চিকিৎসা করানোর পাশাপাশি ওই কার্তিক দাসের পরিবারের দুই মহিলা এবং তাঁর দুই ভাই সোমনাথ ও দেবনাথ দাসকেও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না – তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিকে এই ঘটনায় একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগের সুর চড়া করতে শুরু করেছে দু’পক্ষই। এদিন এই প্রসঙ্গে অলোক সাঁতরা বলেন, “আমি বাইক নিয়ে যাওয়ার সময় কালীদোনা এলাকায় কিছু মদ্যপ যুবক আমাকে গালিগালাজ করছিল। প্রতিবাদ করলে তারা আমাকে ও আমার সঙ্গীদের মারধর করে। সাথে সাথেই আমি জ্ঞান হারাই। বাড়ি ভাঙচুর বা মারধরের অভিযোগ ভিত্তিহীন”।

অন্য দিকে কার্তিক দাসের আক্রান্ত দুই ভাই সোমনাথ ও দেবনাথ দাস এদিন বলেন, “আমরা স্বর্ণশিল্পী। সুরাটে কাজ করি। কিছুদিন আগে বাড়ি ফিরেছি। বৃহস্পতিবার দাদা ও বৌদির মধ্যে গণ্ডগোল হচ্ছিল। সেই সময় কয়েকজন এসে দাদাকে মারধর করে। আর তারই প্রতিবাদ করায় আমাদেরকেও মারধর করা হয়। আমরা প্রবল আতঙ্কে রয়েছি”। তবে এই দোষারোপ পাল্টা দোষারোপের মধ্যেও একাংশ মনে করছেন যে, পারিবারিক বিবাদ হলেও এর ভেতরে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের একটা প্রকট সুর রয়েছে। তবে শেষ পর্যন্ত ঠিক কি কারণে এই বিবাদ, তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে আরামবাগ থানার পুলিশ।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!