এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নতুন বছরে নতুন প্রধানমন্ত্রী পাবে দেশ – এমনটাই দাবি তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার

নতুন বছরে নতুন প্রধানমন্ত্রী পাবে দেশ – এমনটাই দাবি তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার

সারা দেশে এখন বিজেপিকে ঠেকাতে তৈরি হয়েছে মোদী বিরোধী মহাজোট। যেখানে নির্নায়ক ভূমিকায় রয়েছেন তৃনমূল সুপ্রিমো তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই দেশে বাঙালি প্রধানমন্ত্রীর দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন আপামর তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী-সমর্থক।

আর এবার স্বাধীনতা দিবসের পুন্যলগ্নে দাঁড়িয়ে কলকাতায় বিধানচন্দ্র রায়ের মূর্তিতে মাল্যদান করে রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, “নতুন বছরে দেশ নতুন প্রধানমন্ত্রী পাবে”। আর রাজ্যের এই হেভিওয়েট তৃনমূল নেতার এহেন মন্তব্যের পরেই তীব্র জল্পনা তৈরি হয় রাজনৈতিক মহলে। অনেকের প্রশ্ন, তাহলে কি 2019 এ কেন্দ্রের মসনদে থেকে বিজেপিকে সরাতে প্রস্তুত এই বিরোধী মহাজোট?

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিকে লোকসভা নির্বাচনের আগে গতকাল শেষবারের মত লালকেল্লা থেকে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এদিন তিনি বলেন, “দেশের মানুষ সামাজিক ন্যায় পাচ্ছেন, কৃষকদের আয় বেড়েছে। জিএসটি ও নোটবন্দীর ফলে লাভ হয়েছে সাধারণ মানুষের”। এদিকে লালকেল্লায় প্রধানমন্ত্রীর এহেন দাবিকে ফুৎকারে উড়িয়ে দিয়ে রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন,'”উনি এবারই শেষ লালকেল্লায় ভাষন দিচ্ছেন। তাই শেষবারেও এহেন মিথ্যে কথা বলে উনি আদতে লালকেল্লাকেই অপমান করলেন”।

এদিন এই অনুষ্ঠান থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে মিথ্যেবাদী বলে অভিহিত করে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “প্রধানমন্ত্রী একবারও তো বলছেন না যে মেহুল চোকসি, নীরব মোদি বা বিজয় মালিয়ার টাকার কী হল”? কদিন আগে নিজেকে দেশবাসীর চৌকিদার বলেছিলেন নরেন্দ্র মোদী। এদিন সেই প্রসঙ্গেও প্রধানমন্ত্রীকে খোঁচা দিয়ে এই তৃনমূল নেতা বলেন, “চৌকিদার এখন হয়তো ভাগীদারে পরিণত হয়েছে”। সব মিলিয়ে স্বাধীনতা দিবসেও কেন্দ্র বনাম রাজ্যের রাজনৈতিক তরজা অব্যাহত।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!