এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > কাজে বাধা দিলে বিজেপির পার্টি অফিসের সামনেই ধরনার হুমকি তৃণমূলের! উত্তেজনা উত্তরবঙ্গে

কাজে বাধা দিলে বিজেপির পার্টি অফিসের সামনেই ধরনার হুমকি তৃণমূলের! উত্তেজনা উত্তরবঙ্গে

Priyo Bandhu Media


রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস বিরোধী দল বিজেপির ওপর হামলা করছে, এই দাবি তুলে মাঝেমধ্যেই সরব হতে দেখা যায় ভারতীয় জনতা পার্টির নেতাকর্মীদের। এমনকি পরবর্তীতে আর হামলা হলে তারা তৃণমূলের পার্টি অফিসের সামনে বিক্ষোভ বসবে বলেও জানিয়ে দিতে দেখা গিয়েছে বিজেপির অনেক নেতৃত্বকে। তবে এবার ঘটে গেল উলটপুরাণ। সরকারি প্রকল্পে কাজ আটকে দেওয়ার অভিযোগ তুলে প্রয়োজনে বিজেপির পার্টি অফিসের সামনে ধর্না দেওয়ার কথা জানিয়ে দিলো তৃণমূল নেতৃত্ব।

যা নিয়ে এখন ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে আলিপুরদুয়ার জেলায়। জানা গেছে, আগামী পৌরসভা নির্বাচনের আগে আলিপুরদুয়ার পৌরসভার সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রকল্পের কাজে বাধা কাটাতে এবার ময়দানে নামল ঘাসফুল শিবির। অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরেই স্থানীয় বাসিন্দাদের ভুল বুঝিয়ে বিজেপি এই প্রকল্পের কাজে বাধাদান করছিল। তবে এবার সরাসরি এই প্রকল্পের স্বপক্ষে ময়দানে নেমে বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা গেল তৃণমূল কংগ্রেসকে।

শুধু তাই নয়, প্রকল্প গড়তে যদি কোনো বাধা আসে, তাহলে প্রয়োজনে বিজেপির অফিসের সামনে ধর্না দেওয়া হবে বলেও জানিয়ে দিল তৃণমূল কংগ্রেস। সূত্রের খবর, এর অঙ্গ হিসেবে শুক্রবার মাঝেরডাবরি চা বাগানের ভেতরে নির্মাণ প্রকল্পের পাশে একটি সভা করে তৃণমূল নেতৃত্ব। আর সেখানেই প্রকল্পে বাধাদানের ব্যাপারে বিজেপির বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তোলা হয়। তবে এদিনের এই সভায় স্থানীয় বাসিন্দা অপেক্ষা তৃণমূল কর্মীদেরই বেশি ভিড় ছিল।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

জানা যায়, এদিনের সভা হিসেবে তৃণমূল নেতৃত্বেরের পক্ষ থেকে আগেভাগেই জানানো হয়েছিল যে, প্রকল্পের বাধা কাটাতে শুক্রবার সেই প্রকল্পের পাশে গন কনভেনশনের আয়োজন করা হবে। কিন্তু আগেভাগেই এদিন দেখা যায় যে তা তৃণমূলের দলীয় সভায় রূপান্তরিত হয়। এদিন এই সভায় উপস্থিত হয়ে জেলা তৃণমূলের সভাপতি মৃদুল গোস্বামী বলেন, “এই প্রকল্প শুধু আলিপুরদুয়ার পৌরসভার নয়। গোটা জেলার আবর্জনা এনে সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট প্রকল্পে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে এখানে জৈব ও বায়ো গ্যাস তৈরি হবে।”

বিজেপিকে তুলোধোনা করে তাঁর বক্তব্য, “প্রকল্পের কাজে বাধা দিতে গন্ডগোল পাকাতে স্থানীয়দের উস্কানি দিচ্ছে বিজেপি। কিন্তু এখানে এই প্রকল্প হবেই। প্রকল্পের কাজ এগিয়ে নিয়ে যেতে প্রয়োজনে প্রকল্পের পাশে পালা করে দলীয় কর্মীরা ক্যাম্প করে রাতে পাহারা দিয়ে প্রশাসনকে সহযোগিতা করবে।” অন্যদিকে একধাপ এগিয়ে এদিনের এই সভা থেকে প্রকল্পের স্বপক্ষে বলতে গিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে কড়া হুঁশিয়ারি দেন আলিপুরদুয়ার জেলা পরিষদের তৃণমূলের মেন্টর মোহন শর্মা।

তিনি বলেন, “এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে এখানে স্থানীয় 60 জন যুবক কাজ পাবেন। কিন্তু পুরভোটে আগে বিজেপি বাইরে থেকে লোক এনে গ্রামবাসীদের ক্ষেপিয়ে তুলে প্রকল্পের কাজে বাধা দিচ্ছে। প্রকল্পের কাজ এগিয়ে নিয়ে যেতে প্রয়োজনে বিজেপির পার্টি অফিসের সামনে ধর্না- আন্দোলনে বসা হবে। এই প্রকল্প ব্যর্থ হলে জেলাজুড়ে আন্দোলন করে গোটা জেলাকে স্তব্ধ করে দেওয়া হবে।” আর প্রকল্পের কাজে বিজেপির বিরুদ্ধে বাধাদানের অভিযোগ তুলে, প্রয়োজনে বিজেপির পার্টি অফিসে ধরনা করার কথা তৃণমূল নেতাদের মুখ থেকে উঠে আসায় এখন তীব্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে আলিপুরদুয়ারে।

যদিও বা তৃণমূলের এই অভিযোগকে গুরুত্ব দিতে নারাজ ভারতীয় জনতা পার্টি। এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা বিজেপির সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা বলেন, “আলিপুরদুয়ার পৌরসভার ওই প্রকল্পের কাজে বাধা দেওয়ার পেছনে আমাদের দলের কোনো কর্মী জড়িত নয়। আলিপুরদুয়ার পৌরসভার বয়স 62 বছর। আমাদের দল তো সদ্য এসেছে। তাহলে এতদিনেও কেন পুরসভার এই প্রকল্প করল না!” আর তৃণমূল বনাম বিজেপির এই তরজার মাঝে এখন যেভাবে আলিপুরদুয়ারে এই প্রকল্প করতে তৃণমূল চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে বিজেপির দিকে, তাতে শেষ পর্যন্ত এই প্রকল্পের ভবিষ্যত কি হয়, সেদিকেই নজর থাকবে বিশেষজ্ঞদের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!