এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > রাজ্যের ৪২ টি আসনে ঘাসফুল শিবিরের সাম্ভাব্য প্রার্থী তালিকা – আজ অন্তিম পর্ব

রাজ্যের ৪২ টি আসনে ঘাসফুল শিবিরের সাম্ভাব্য প্রার্থী তালিকা – আজ অন্তিম পর্ব

দেখতে দেখতে এসে পড়ল লোকসভা নির্বাচন – যদিও এখনও নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা হতে বেশ কিছুটা দেরি আছে। কিন্তু, রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত সচেতন বাঙালির মননে এখন থেকেই ঘোরাফেরা করছে লোকসভা নির্বাচন। আর হবে নাই বা কেন? ইতিমধ্যেই, লোকসভা নির্বাচন নিয়ে পূর্ণোদ্যমে দামামা বাজিয়ে দিয়েছে মূল দুই প্রতিপক্ষ তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি। লড়াইয়ে, বামফ্রন্ট বা কংগ্রেস থাকলেও – এখনও সেইভাবে উচ্চগ্রামে প্রচারে নামেননি দুই শিবিরের নেতারা।

কংগ্রেস তো এখনও দ্বিধাবিভক্ত বামফ্রন্ট না তৃণমূল কংগ্রেস কার হাত ধরে লোকসভা নির্বাচনে যাবে। অন্যদিকে, বামফ্রন্টের সংগঠন এখনও বেশ কিছু জায়গায় অটুট থাকলেও, তা লোকসভা আসন জেতার মত জায়গায় নেই একক ক্ষমতায় তা উঠে এসেছে বিভিন্ন সমীক্ষায়। এমনকি, আমাদের জুলাই মাসে করা শেষ সমীক্ষাতেও সেই একই চিত্র। এই অবস্থায় তৃণমূল কংগ্রেস কিন্তু ‘বাঙালি প্রধানমন্ত্রীর’ স্বপ্ন উস্কে দিয়ে আম-বাঙালির কাছে ৪২-এ-৪২ এর দাবি করেছে। অন্যদিকে, গেরুয়া শিবির ‘পরিবর্তনের পরিবর্তন’ করার জল্পনা উস্কে দিয়ে বাংলা থেকে অন্তত ২২ টি আসন জেতার দাবি জানাচ্ছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এই অবস্থায়, স্বাভাবিকভাবেই উৎসবের মরশুম পেরোলেই সবকটি দল কোমর বেঁধে লোকসভার প্রস্তুতি ও প্রচারে নেমে পড়বে। কিন্তু, তার আগে আমজনতার কাছে লাখ টাকার প্রশ্ন কোন রাজনৈতিক দলের হয়ে কোন আসনে কে প্রার্থী হতে পারেন। ঘাসফুল শিবিরের বিভিন্ন নেতার সঙ্গে কথা বলে, বিভিন্ন লোকসভায় সাধারণ ভোটারের প্রত্যাশা জেনে এবং আমাদের বিভিন্ন নির্বাচনের অভিজ্ঞতার সংমিশ্রণ ঘটিয়ে আমরা রাজ্যের ৪২ টি আসনের ঘাসফুল শিবিরের সাম্ভাব্য প্রার্থীদের তালিকা মোট ৬ টি পর্বে আপনাদের সামনে আনতে চলেছি। যদিও এই তালিকা সম্পূর্ণরূপে প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় নিজস্ব মতামত, কোনোমতেই ঘাসফুল শিবিরের তরফে সরকারি কোন ঘোষণা নয় বা কোন মতেই কোন রাজনৈতিক দল বা ব্যক্তির প্রচার নয়। আজ অন্তিম পর্ব –

১. কুচবিহার – পার্থপ্রতিম রায়
২. আলিপুরদুয়ার – দশরথ তিরকে
৩. জলপাইগুড়ি – বিজয়চন্দ্র বর্মন
৪. দার্জিলিং – বিনয় তামাং
৫. রায়গঞ্জ – মদন মিত্র
৬. বালুরঘাট – বিপ্লব মিত্র
৭. মালদা-উত্তর – তাজমুল হোসেন অথবা সুশীলচন্দ্র রায়

৮. মালদা-দক্ষিণ – মহম্মদ মোয়াজ্জেম হোসেন
৯. জঙ্গিপুর – মহম্মদ সোহরাব অথবা আখরুজ্জামান
১০. বহরমপুর – অপূর্ব সরকার অথবা নীলরতন আঢ্য
১১. মুর্শিদাবাদ – মইনুল হাসান অথবা আবু তাহের খান
১২. কৃষ্ণনগর – অরিন্দম ভট্টাচার্য
১৩. রানাঘাট – তাপস মন্ডল
১৪. বনগাঁ – মমতাবালা ঠাকুর

১৫. ব্যারাকপুর – অর্জুন সিং
১৬. দমদম – সৌগত রায়
১৭. বারাসত – ডাঃ কাকলি ঘোষদস্তিদার
১৮. বসিরহাট – ইদ্রিশ আলি
১৯. জয়নগর – প্রতিমা মন্ডল
২০. মথুরাপুর – চৌধুরী মোহন জাটুয়া
২১. ডায়মন্ড-হারবার – দীপক অধিকারী দেব

২২. যাদবপুর – নামী সংবাদপত্রের দিল্লিবাসী হেভিওয়েট সাংবাদিক অথবা দক্ষিণ কলকাতার এক দাপুটে নেতা
২৩. কলকাতা-দক্ষিণ – সুব্রত বক্সী
২৪. কলকাতা-উত্তর – রাজ্যের এক হেভিওয়েট মহিলা মন্ত্রী অথবা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়
২৫. হাওড়া – স্বপন বন্দ্যোপাধ্যায় অথবা কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়
২৬. উলুবেড়িয়া – সাজদা আহমেদ
২৭. শ্রীরামপুর – অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়
২৮. হুগলি – রত্না দে নাগ

২৯. আরামবাগ – মানস মজুমদার অথবা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ এক যুবনেতা
৩০. তমলুক – দিব্যেন্দু অধিকারী
৩১. কাঁথি – শিশির অধিকারী
৩২. ঘাটাল – রাজ্যসভার হেভিওয়েট সাংসদের পুত্র
৩৩. ঝাড়গ্রাম – বিরবাহা সোরেন অথবা রাজীব লোচন সরেন
৩৪. মেদিনীপুর – চন্দন মিত্র অথবা নির্বেদ রায়
৩৫. পুরুলিয়া – দিব্যজ্যোতি প্রসাদ সিংদেও অথবা শান্তিরাম মাহাতো

৩৬. বাঁকুড়া – শম্পা দড়িপা অথবা শুভাশীষ বটব্যাল
৩৭. বিষ্ণুপুর – অরূপ খাঁ অথবা মৃত্যুঞ্জয় মুর্মু
৩৮. বর্ধমান-পূর্ব – গত বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে লড়া এক প্রার্থী অথবা সুনীলকুমার মন্ডল
৩৯. বর্ধমান-দুর্গাপুর – রাজীব ঘোষাল অথবা জিতেন্দ্র তিওয়ারি
৪০. আসানসোল – অভিজিৎ ঘটক অথবা কর্নেল দীপ্তাংশু চৌধুরী
৪১. বীরভূম – শতাব্দী রায়
৪২. বোলপুর – অসিতকুমার মাল

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!