এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কেন্দ্র বিরোধী আন্দোলনে আবার ধর্নায় বসতে চলেছে তৃণমূল – এবার 48 ঘণ্টা!

কেন্দ্র বিরোধী আন্দোলনে আবার ধর্নায় বসতে চলেছে তৃণমূল – এবার 48 ঘণ্টা!

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তিনি যে তার আন্দোলন চালিয়ে যাবেন, তা ফের আরও একবার স্পষ্ট করে দিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাক্ষাৎ রাজ্য বনাম কেন্দ্রের সম্পর্কের বরফ অনেকটাই গলল বলে মনে করেছিল রাজনৈতিক মহল। কিন্তু রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থায় কেন্দ্রীয় সরকারের বিলগ্নীকরণের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে নেতাজি ইন্ডোরের সভা থেকে 48 ঘণ্টা ধর্নার কথা মমতা বন্দোপাধ্যায় ঘোষণা করায় সেই সমস্ত জল্পনায় জল পড়ে গেল।

সূত্রের খবর, এদিন নেতাজি ইন্ডোরের সভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রীয় সরকারের বিলগ্নিকরন সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তোপ দেগে দিল্লিতে টানা 48 ঘন্টা ধরনা দেওয়ার জন্য দলকে একটি কর্মসূচি বেঁধে দেন। যেখানে তৃণমূল সাংসদের যোগ দেওয়ার কথা বলেন তিনি।

এছাড়াও এই ব্যাপারে কেন্দ্রের প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী এবং শিল্পমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার জন্য সংসদীয় দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে নির্দেশ দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে দিল্লির পাশাপাশি মুম্বাই, চেন্নাই সহ অন্যান্য বড় শহরেও এই ব্যাপারে আন্দোলন করার কথা জানিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। শুধু তাই নয়, পুজো শেষ হওয়ার সাথে সাথেই আগামী 18 অক্টোবর শিয়ালদহ থেকে বিবাদীবাগের অফিস পাড়া পর্যন্ত একটি মিছিলে মুখ্যমন্ত্রীও হাটবেন বলে জানা গেছে।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে আগামী 26 সেপ্টেম্বর কাশিপুর অর্ডিন্যান্স কারখানার সামনে এবং 27 সেপ্টেম্বর বিবাদীবাগ কোল ইন্ডিয়া দপ্তরের সামনে তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিক্ষোভ সভা করা হবে বলে খবর। আর কেন্দ্রের এই বিলগ্নীকরণের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তারা যাতে আন্দোলনে কোনরূপ খামতি না রাখেন, তার জন্য নেতাজি ইন্ডোরের সভা থেকেই একটি কমিটি তৈরি করে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে কমিটিতে রাখা হয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, সুব্রত বক্সি, সৌগত রায় সহ অন্যান্যদের। অন্যদিকে এই কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে শ্রমিক সংগঠনের তৃণমূলের সভানেত্রী দোলা সেনকে।

সূত্রের খবর, এদিন দলকে কর্মসূচি বেঁধে দিয়ে নেতাজি ইন্ডোরের সভা থেকে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “এই ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করার প্রয়োজন থাকলেও অন্য কেউ এগিয়ে আসতে চাইছেন না। তাই আমাদের সক্রিয় হতে হচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকার রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা ও ব্যাংকগুলোকে নিয়ে হ-য-ব-র-ল’ পরিস্থিতি তৈরি করেছে। আমরা কিছু করতে চাইলেও সেটা করতে দেওয়া হচ্ছে না। জেসপ এবং ডানলপ কারখানা অধিগ্রহণ করার জন্য বিধানসভায় বিল পাস করা হয়েছিল। কেন্দ্র একটা সই করে দিলে এটা কার্যকর করা যেত। কিন্তু তিন বছর ধরে তা ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।”

সব মিলিয়ে কেন্দ্রের বিলগ্নীকরন সিদ্ধান্তের ইস্যুতে এবার দলকে 48 ঘন্টা ধরনার কর্মসূচি বেঁধে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!