এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কাল বনধে ক্ষতির পরিমান সামনে আনল পরিবহন দপ্তর, হিসেবে শুনলে চমকে যাবেন

কাল বনধে ক্ষতির পরিমান সামনে আনল পরিবহন দপ্তর, হিসেবে শুনলে চমকে যাবেন

একেই বনধ হলে চরম ক্ষতির মুখে পড়তে হয় রাজ্যকে – আর তার ওপরে যদি সেই বনধে সরকারি জিনিসের ওপর আঘাত নেমে আসে তাহলে তো কোনো কথাই নেই। যা এককথায়, গোঁদের ওপর বিষফোঁড়ার সমান। সূত্রের খবর, গতকাল বিজেপির ডাকা ১২ ঘন্টার বাংলা বনধে যাতে পরিবহন ব্যাবস্থা সচল থাকে তার কারনে আগেভাগেই বাড়তি প্রস্তুতি নিয়েছিল রাজ্য পরিবহন দপ্তর। বাড়তি বাস পথে নামানোর পাশাপাশি ভেসেল, ট্রামও চালানো হয়েছে।

জনসাধারনের যাতে কোনোরূপ অসুবিধে না হয় তার জন্য সকাল থেকেই পরিবহন দপ্তরে বসে গোটা ব্যাবস্থার প্রতি নজড় রেখেছিলেন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু এত অতিরিক্ত বাস পথে নামলেও সরকারি ক্ষতি এড়ানো গেল না কিছুতেই। জানা গেছে, পশ্চিমবঙ্গ পরিবহন নিগম যেখানে অন্যান্য দিনে প্রথম শিফ্টে ৯০০ টি বাস চালায় সেখানে গতকাল ১,২৫০ টি বাস রাস্তায় নামিয়েছিল। কিন্তু এর মধ্যে মোট ১২ টি বাস ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলে দাবি এক নিগম কর্তার।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না – তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

অন্যদিকে কাজের দিনে যেখানে ৫৭০ টি বাস চালানো হয় সেখানে এই বনধের দিনে মানুষের যাতে কোনো অসুবিধে না হয় সেই কারনে অতিরিক্ত ২০ শতাংশের বেশি বাস চালিয়েছে এনবিএসটিসি। কিন্তু তাঁদেরও ২৯ টি বাস বনধ-সমর্থনকারীদের হামলার জেরে প্রবল ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে খবর। তবে শুধু বাস নয়, এদিন ট্রেন চলাচলেও ব্যাঘাত ঘটিয়েছে বনধ করা বিজেপি কর্মীরা। অভিযোগ, কোথাও অবরোধ তো কোথাও ওভারহেড তারে কলাপাতা ফেলে দেওয়ায় ব্যাঘাত ঘটে রেল পরিষেবাতেও।

যার জেরে শিয়ালদহের ডাউন লাইনে ৩৯ টি এবং আপের ৪০ টি ট্রেন বাতিল করার পাশাপাশি হাওড়া বিভাগের তিনটি এবং দক্ষিন পূর্ব রেলের তরফে ডাউন লাইনের দশটি এবং আপের আটটি ট্রেন বাতিল করা হয়। এদিকে এই বনধের জেরে রেলের যে সমস্ত পরিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিতে পারেননি তাঁদের জন্য ১৬ ই অক্টোবর ফের পরীক্ষার বন্দোবস্ত করা হবে বলে জানিয়েছে রেল। এদিকে গতকালের এই বনধে পাঁচটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি বনধসমর্থনকারীদের হামলায় জখম হয়েছেন পাঁচজন বাসচালক।

উত্তর দিনাজপুর, কোচবিহার, হাওড়াতে বাসে হামলা চালানোর পাশাপাশি শহরের ব্রাবোর্ন রোডেও একটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। জানা গেছে, বনধের দিনে এই ক্ষতিগ্রস্থ বাসগুলি সারাতে কয়েক কোটি টাকা ব্যায় হবে সরকারের। যা নিয়ে প্রবল চিন্তায় রাজ্যের প্রশাসনিক কর্তারা। তবে, সেই টাকা যাঁরা বনধ সমর্থন করেছিলেন বা সরকারি সম্পত্তি যাঁদের হাতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তাঁদের কাছ থেকেই উসুল করার পরিকল্পনা চলছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!